April 18, 2024, 4:39 am

৮ বছর পরে হচ্ছে জেলা আ,লীগ সম্মেলন! শীর্ষ পদে ৩০ বছর ক্ষমতায় দুই জন

তরিকুল ইসলাম রতন, বরগুনাঃ
৮ বছর পরে হচ্ছে জেলা আ,লীগ সম্মেলন! শীর্ষ পদে ৩০ বছর ক্ষমতায় দুই জন

দীর্ঘ ৮ বছর পর বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে । নেতারা মনে করেন এবার বুঝি ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন করা হবে। এ নিয়ে দলীয় নেতাদের মনে দেখা দিয়েছে নানা জল্পনা কল্পনা। ৩৫ বছর যাবত জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে রয়েছেন এ্যাড, ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু (এমপি) ও সাধারণ সম্পাদক পদে ৩০ বছর যাবত রয়েছেন আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর কবির (জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান) ।

আগামী বুধবার ( ১৬ ই নভেম্বর) বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড,ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু এর সভাপতিত্বে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সঞ্চালনায় থাকবেন বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর কবির (জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান)।

এ সম্মেলনে ত্যাগী নেতাদের অভিমত, আগামী বুধবার (১৬ নভেম্বর) জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটির নির্ধারন করা হবে। দলীয় পদ হারানোর শঙ্কায় জেলা আওয়ামী লীগের প্রথম সারির নেতারা সম্মেলন করতে আগ্রহী ছিলেন না। কেন্দ্র থেকে সম্মেলন করার জন্যে কয়েক দফা তাগিদ দিলেও নানা অজুহাত ও তালবাহানায় তারা সম্মেলন করেননি। এতে দলের ভিতরে নানা হতাশার সৃষ্টি হয়েছে। এবার বুঝি তাদের ভাগ্যর পরিবর্তন ঘটবে।

আরও পড়ুন- ঝালকাঠিতে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার

জেলা আওয়ামীলীগ সুত্রে জানা যায়, গত ২০১৪ সালে বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিলো । গঠনতন্ত্র অনুযায়ী কমিটির মেয়াদ তিন বছর থাকলেও সেখানে ৮ বছরের বেশি সময় অতিবাহিত হয়েছে। এতে দলীয় শৃঙ্খলা ভেঙে পড়ার পাশাপাশি ঝিমিয়ে পড়েছিলো সাংগঠনিক কর্মকাজ। জেলার শীর্ষ দুই পদে ৩০ বছর আঁকড়ে আছেন দুই নেতা।

এরা হলেন, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাড. ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু (এমপি) ও সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর কবির। আগামী ১৬ই নভেম্বর বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগ সম্মেলনে জেলার নেতৃত্বে নতুনদের নাম শোনা যাচ্ছে-সভাপতি পদে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন-বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোতালেব মৃধা, তিনি বর্তমানে বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সিনি, যুগ্ন- সাধারন সম্পাদক এবং আলহাজ্ব মোঃ হুমায়ুন কবির তিনি সিনি, সহ-সভাপতি হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করছেন । অপরদিকে সাধারন সম্পাদক পদে অনেকের নাম শোনা যাচ্ছে, এরা হলেন – এ্যাড কামরুল আহসান মহারাজ, তিনি বর্তমানে বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম – সাধারন সম্পাদক পদে রয়েছেন, আব্বাস হোসেন মন্টু মোল্লা, তিনি জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম -সাধারন সম্পাদক পদে এবং গোলাম সরোয়ার টুকু তিনি জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদে দ্বায়িত্ব পালন করছেন।

আরও পড়ুন- মাটি চাপা পরে শ্রমিকের মৃত্যু

জেলা আওয়ামী লীগের এক প্রবীন নেতা জানান, বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন হয় ২০১৪ সালের ১৫ই নভেম্বর। ওই সম্মেলনে সংসদ সদস্য এ্যাড, ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুকে সভাপতি ও জাহাঙ্গীর কবিরকে সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত করা হয়েছিলো। গত ২০১৯ সালের ১ ডিসেম্বর সম্মেলনের সময় -তারিখ নির্ধারন করা স্বও্বেয় তা আর করা সম্ভব হয়নী। পুরাতন নেতৃত্বেই বরগুনা জেলা আওয়ামীলীগের কমিটি চলে আসছে।

তিনি আরও জানান, যারা দীর্ঘদিন দ্বায়িত্বে রয়েছেন তাদের সম্মান নিয়েই যাওয়া উচিৎ। আর যারা যোগ্যতা সম্পূর্ন এবং যারা সঠিকভাবে দলকে নেতৃত্ব দিতে পারবে তাদেরকেই দ্বায়িত্ব দেওয়া উচিৎ। যারা দলের জন্যে ত্যাগ ও কষ্ট করেছেন।

বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সিনি, যুগ্ন -সাধারন সম্পাদক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোতালেব মৃধা তার কাছে জেলা সম্মেলন সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি যুগান্তরকে জানান, আমি পিছনের কথা উল্লেখ করতে চাই না। পার্টির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ১৬ ই নভেম্বর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। কেন্দ্রীয়ভাবে নির্দেনা রয়েছে আগামী সম্মেলনের মাধ্যমে জেলা আওয়ামীলীগের নতুন কমিটি হবে।

তিনি আরও বলেন– সম্মেলন মানেই নতুন নেতৃত্ব। সৎ,যোগ্য ও ত্যাগী নেতাকে নতুন কমিটিতে মূল্যায়ন করবেন। ১৯৮০ সাল থেকে আমি দলের গুরুত্বপূর্ণ পদে সততার সহিত দ্বায়িত্ব পালন করে আসছি। বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রতিবাদ করায় আমি তিন তিন বার কারাবরণ করেছি। আমার বিশ্বাস দল আমাকে মূল্যায়ন করবেন। বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর কবির এর কাছে সম্মেলনের বিষয় জানতে চাইলে তিনি জানান, বিভিন্ন হামলা ও সংগ্রামের কারনে সম্মেলন করা হয়নি। তাছাড়া করোনা মহামারির কারনে দুই বছর পিছিয়েছে। আগামী ১৬ ই নভেম্বর সম্মেলনের মাধ্যমে সব কিছুই নিরসন হবে।

আরও পড়ুন- ন্যায্য মূল্যের আটা নিতে আসা ৬০ বছরের বৃদ্ধাকে মারধর করলেন ডিলার

তিনি আরও জানান, আমি দীর্ঘদিন দলের সাথে আছি। আশা করি আমাকে দল মূল্যায়ন করবেন এবং আমাকে আবারও নেতৃত্বের সুযোগ দিবেন।

এবিষয়ে বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড.ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু (এমপি) একাত্তরবিডিটুয়েন্টিফোরকে জানান, বিভিন্ন প্রতিকুলতার কারনে জেলা আওয়ামীলীগের কমিটি দেওয়া সম্ভব হয়নি। তাছাড়া (কোভিড-১৯)দেশে করোনা মহামারি কারনে জেলা আওয়ামীলীগের কমিটি গঠনে দুই বছর বিলম্ব হয়েছে। তবে আগামী ১৬ ই নভেম্বর জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আর এই সম্মেলনের মধ্যে দিয়ে ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন হবে এবং নেতৃত্বে আসবে।

তিনি আরও জানান, আমার বিশ্বাস দল আমাকে আবারও মূল্যায়ন করবেন। এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের (এমপি), বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক চীপ হুইপ আলহাজ্ব আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ও বিশিষ্ট্য কৃষিবীদ আ ফ ম বাহ উদ্দিন নাসিম, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড, আফজাল হোসেন সহ কেন্দ্রীয় নেতৃবিন্দ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা