২১৮ রানের জয়ে সমতায় সিরিজ শেষ করল বাংলাদেশ

:: ৭১বিডি২৪ডটকম :: স্পোর্টস ডেস্ক ::


২১৮ রানের জয়ে সমতায় সিরিজ শেষ করল বাংলাদেশ


ঢাকা টেস্টে বাংলাদেশের হারের সম্ভাবনা ছিল না। নেতিবাচক ফল হতে পারত একটাই, জিম্বাবুয়ের ড্র। পঞ্চম দিনে এসেও বোঝা যাচ্ছিল না, আদৌ এই ম্যাচটা বের করে নিতে পারবে কি না টাইগাররা। ব্রেন্ডন টেলর যে দেয়াল হয়ে দাঁড়িয়ে গিয়েছিলেন। তবে শেষপর্যন্ত সব প্রতিরোধ ভেঙে বড় জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। ঢাকা টেস্টে বাংলাদেশ জিতেছে ২১৮ রানে। এই জয়ে দুই ম্যাচের সিরিজটা ১-১ সমতায় শেষ করল স্বাগতিকরা।

প্রথম ইনিংসে তাইজুল ইসলাম, আর দ্বিতীয় ইনিংসে মিরাজের ঘূর্ণিতে জিতল বাংলাদেশ। ৪৪৩ রানের লক্ষ্যে নেমে দ্বিতীয় ইনিংসে ৯ উইকেটে ২২৪ রান করে জিম্বাবুয়ে। তেন্দাই চাতারা অ্যাবসেন্ট হার্ট ছিলেন।
প্রথম সেশনে দুই গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটসম্যান শন উইলিয়ামস ও সিকান্দার রাজাকে ফেরান মোস্তাফিজুর রহমান ও তাইজুল। তারপরই টেলরের সঙ্গে মুরের প্রতিরোধে লাঞ্চের বিরতিতে যায় জিম্বাবুয়ে।

দ্বিতীয় সেশনের শুরুতে তাদের ৬৬ রানের জুটি ভাঙেন মিরাজ। মুরকে ১৩ রানে ইমরুল কায়েসের ক্যাচ বানান তিনি। কিছুক্ষণ পর রেজিস চাকাভা মাত্র ২ রান করে রান আউট হন। মুমিনুল হকের থ্রো থেকে সহজেই তাকে রান আউট করেন মুশফিকুর রহিম।

জিম্বাবুয়ে ব্যাটসম্যানদের যাওয়া আসার মিছিলে এরপর যোগ দেন ডোনাল্ড তিরিপানো। মিরাজের বলে রানের খাতা না খুলেই লিটন দাসকে ক্যাচ দেন তিনি। আবারও এই বাংলাদেশি স্পিনারের ভেল্কিতে ব্রেন্ডন মাভুতা ধরা পড়েন তাইজুলের হাতে।

মিরাজ তার পঞ্চম উইকেট তুলে নেন কাইল জার্ভিসকে ফিরিয়ে। অন্য প্রান্তের ব্যাটসম্যানদের কাছ থেকে উপযুক্ত সঙ্গ না পেলেও টানা দ্বিতীয় ইনিংসে সেঞ্চুরি করেন টেলর। প্রথম জিম্বাবুয়ান হিসেবে দুইবার দুই ইনিংসেই সেঞ্চুরির কীর্তি গড়লেন তিনি। ১৬৭ বলে ১০ চারে ১০৬ রানে অপরাজিত ছিলেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান।

দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ৩৮ রান দিয়ে ৫ উইকেট নেন মিরাজ। ম্যাচে তার উইকেট ৯৯ রানে ৭টি। আর তাইজুল ২০০ রান দিয়ে ম্যাচে পেলেন ৭ উইকেট।৪ রানে টেলর ও ২ রানে উইলিয়ামস বৃহস্পতিবার ক্রিজে খেলতে নামেন। ২ উইকেটে ৭৬ রানে তাদের দিন শুরু হয়েছে।

আগের দিন হ্যামিলটন মাসাকাদজা ও ব্রায়ান চারির উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ৬৮ রানে প্রথম উইকেট হারানো জিম্বাবুয়ে আর ২ রান যোগ করতে তাদের দ্বিতীয় ব্যাটসম্যানকে ফেরান তাইজুল ইসলাম। চারি ৪৩ রানে তার শিকার হন। আর মাসাকাদজা করেন ২৫ রান।

প্রথম ইনিংস বাংলাদেশ ঘোষণা করে ৭ উইকেটে ৫২২ রানে। তারপর ৩০৪ রানে জিম্বাবুয়েকে অলআউট করে স্বাগতিকরা দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে ৬ উইকেটে ২২৪ রানে। তারা লিড পায় ৪৪২ রানের।

ম্যাচের সেরা হয়েছেন ২১৯ রানের রেকর্ড গড়া মুশফিক। আর সিরিজসেরা দুই ম্যাচে ১৮ উইকেট নেওয়া তাইজুল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ৫২২/৭ ডি.

জিম্বাবুয়ে প্রথম ইনিংস: ৩০৪

বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংস: ২২৪/৬ ডি.

জিম্বাবুয়ে দ্বিতীয় ইনিংস: ২২৪ (টেলর ১০৬*, ব্রায়ান চারি ৪৩, মাসাকাদজা ২৫, উইলিয়ামস ১৩; মেহেদী মিরাজ ৫/৩৮, তাইজুল ২/৯৩, মোস্তাফিজ ১/১৯)

ফল: বাংলাদেশ ২১৮ রানে জয়ী

সিরিজ: ১-১ সমতায় শেষ।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *