১২ ছাত্রীকে দিনের পর দিন ধর্ষণ সাত শিক্ষকের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:


১২ ছাত্রীকে দিনের পর দিন ধর্ষণ সাত শিক্ষকের


দূরের স্কুলে মেয়েদের পড়তে পাঠিয়েছিলেন হোস্টেলের ভরসায়। কিন্তু অভিভাবকরা কল্পনাও করতে পারেননি, কী ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা নিয়ে ছুটিতে বাড়ি ফিরবে তারা। দিনের পর দিন ১২ জন নাবালিকা আদিবাসী ছাত্রীকে ধর্ষণ করে গেল স্কুলেরই সাত শিক্ষক আর চার জন অশিক্ষক কর্মচারী।

ধর্ষণের ফলে সম্ভবত অন্তঃসত্ত্বাও হয়ে পড়েছে তিন ছাত্রী। ভয়াবহ এই ঘটনা ঘটেছে ভারতের মহারাষ্ট্রের বুলধানা এলাকায় নিনাধি আশ্রমিক স্কুলে। এক ছাত্রীর অভিভাবকের করা অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয়েছে ওই সাত শিক্ষক সহ ১১ অভিযুক্তকে।

ধর্ষিতা ছাত্রীদের বয়েস ১২ থেকে ১৪ বছরের মধ্যে। এরা প্রত্যেকেই থাকত স্কুলের হোস্টেলে। দিওয়ালির ছুটিতে বাড়ি ফিরে অনেকেই বাবা মা-কে জানায় নিজেদের নিদারুণ অভিজ্ঞতার কথা। ব্যাপারটা জানাজানি হলেও, এখনও পর্যন্ত মাত্র এক জন ছাত্রীর অভিভাবকই সরকারি ভাবে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

মহারাষ্ট্র পুলিশ জানাচ্ছে, সেই ছাত্রীর বয়ানও রেকর্ড করা হয়েছে। শুধু নিজের কথাই নয়, তার সহপাঠীরাও কী ভাবে ওই ১১ জনের লালসার শিকার হত তাও জানিয়েছে সে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই ধরা হয়েছে ১১ জনকে। পুলিশ চাইছে, বাকি অভিভাবকরাও তাঁদের অভিযোগ দায়ের করুন।

ধর্ষিতাদের মধ্যে তিন জন সম্ভবত অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে, এমনই ধারণা অভিভাবকদের। দ্রুত এদের মেডিক্যাল টেস্টের ব্যবস্থা করছে পুলিশ।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *