ব্রেকিং নিউজ
শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:৪৪ অপরাহ্ন

স্ত্রীকে খুন করে খাটের নীচে কাঁথায় প্যাঁচিয়ে রাখলেন স্বামী

আমির হোসেন, ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ / ৬৩ ভোট :
প্রকাশ : সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২

ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার মঠবাড়ি ইউনিয়নে স্বামীর হাতে স্ত্রীর নির্মম খুনের ঘটনা ঘটেছে।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে খাটের নীচ থেকে কাঁথায় প্যাঁচানো অবস্থায় এক গৃহবধুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত গৃহবধু শারমিন আক্তার (২৫), মঠবাড়ি এলাকার হাচান হাওলাদারের স্ত্রী এবং ঝালকাঠি সদর উপজেলার সাচিলাপুর গ্রামের মৃত মনির হোসেনের মেয়ে। তার পাঁচ বছর বয়সী শাওন নামের একটি ছেলে রয়েছে।

রবিবার (২৫সেপ্টেম্বর) বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে রাজাপুর উপজেলার মঠবাড়ি ইউনিয়নের মিলবাড়ি বাজার সংলগ্ন মঠবাড়ি এলাকায় গৃহবধুর স্বামীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় গৃহবধুর স্বামী মো. হাচান হাওলাদার (৩০) কে পালিয়ে যাওয়ার সময় রাজাপুর উপজেলার নৈকাঠি এলাকা থেকে স্থানীয়দের সহায়তায় পুলিশ আটক করেছে। হাচান পেশায় একজন দিনমজুর। সে মাদকাসক্ত বলে একাকাবাসীর অভিযোগ।

আরও পড়ুন- নলছিটিতে গলায় ফাঁস দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা

স্থানীয় সজিব, ছালাম, সবুর, মেহেদিসহ একাধিক এলাকাবাসী জানায়, হাচান একজন মাদকাসক্ত ছিল। হাচান মাদকের টাকার জন্য প্রায়ই স্ত্রীকে মারধর করতেন।

হাচানের ছোট ভাই আট বছর বয়সী রমজান জানান, দুপুরে খালে গোসল শেষে করে রমজান বাড়িতে আসে। এ সময় শারমিন কে মেরে খেতায় পেচিয়ে ঘরের মধ্যে খাটের নিচে আর বড় ভাই হাচান খাটের পাশে বসে থাকতে দেখে রমজান।

হাচানের পাশের ঘরের মো. বাহারুল হাওলাদার জানায়, সে দুপুরে বাড়িতে এসে শারমিনকে না দেখে খোঁজ খবর নিতে শারমিনের ঘরে ডাকাডাকি করেন। এসময় হাচানের ছোট ভাই রমজানের কাছ থেকে সে জানতে পারে শারমিনকে মেরে খাটের নীচে লুকিয়ে রাখা হয়েছে। বাহারুল বিষটি সঙ্গে সঙ্গে থানা পুলিশকে জানায়। তবে কি কারণে হাচান শারমিনকে মেরেছে তা নিশ্চিত করে বলতে পারেনি কেউ।

রাজাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) পুলক চন্দ্র রায় জানান, হাচানকে আটক করা হয়েছে। মৃতের গলায় দাগ রয়েছে। তাকে স্বাশরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিক ধারনা করা হচ্ছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। এ বিষয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি জানায়।


আপনার মতামত লিখুন :
0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
আরো সংবাদ...

নিউজ বিভাগ..