রাজমিস্ত্রীকে হত্যা করলো স্ত্রী ও ২ সন্তান

৭১বিডি২৪ডটকম ॥ করেসপন্ডেন্ট;


বরিশাল


বরিশাল : বরিশাল শহরতলীর চরবাড়ীয়ায় নিজের স্ত্রী ও ২ সন্তান মিলে মোক্তার বেপারী (৪৫) নামে ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহত মোক্তার বেপারী (৪৫) পেশায় একজন রাজমিস্ত্রী ও কাউনিয়া থানাধীন বরিশাল সদর উপজেলার চরবাড়ীয়া ইউনিয়নের বোর্ডস্কুল এলাকার অফেজ উদ্দিন বেপারীর ছেলে।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০ টায় তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারী বিভাগের রেজিস্ট্রার ডাঃ ইকতিয়ার আহসান। তিনি জানান, অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণ ও মাথায় ধাড়ালো অস্ত্রের আঘাতে মোক্তার ব্যাপারীর মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয়েছেন তারা।

এর আগে সকাল ৬ টার দিকে নিজ বসত ঘরে তার উপর ওই হামলার ঘটনা নিজের স্ত্রী ও দুই সন্তান। নিহতের বোন শিল্পি বেগম জানান, তার ভাইয়ের সাথে বানারীপাড়া উপজেলার চাখারের মজিদ হাওলাদারের কন্যা মুনিরা খাতুনের সাথে প্রায় ২০ বছর পূর্বে বিয়ে হয়। তাদের ১৬ বছরের মেয়ে মিলি আক্তার এইচএসসি’র শিক্ষার্থী ও ১৩ বছরের আফিজুল ৮ম শ্রেনীতে পড়াশুনা করে। তিনি জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে জানতে পারেন তার ভাইয়ের স্ত্রী তার ভাইকে কুপিয়ে গুরুত্বর আহত হয়েছে।এরপর হাসপাতালে এসে তার মৃত্যুর বিষয়টি তিনি শুনতে পান। ভাইয়ের মাথা ও শরীরে অসংখ্য আঘাতের চিহৃ রয়েছে। নির্মম ভাবে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

নিহতের মামী কমলা বেগম জানান, দীর্ঘ ৩/৪ বছর ধরে মোক্তার ব্যপারীর পারিবারিক কলহে লেগে থাকতে তার স্ত্রী মুনিরা খাতুনের সাথে। সম্প্রতি মোক্তার বেপারীপ্রায় ৩ লাখ টাকার জমি বিক্রি করে। সেই টাকা তার স্ত্রী জোর করে নিয়ে নিয়ে গেলে তা নিয়ে বিরোধ হয়। সকালে বাড়িতে চিৎকার-চেচামেচি শুনে তারা সেখানে গিয়ে ঘরে রক্তাক্ত অবস্থায় মোক্তারকে দেখতে পান। স্থানীয় চরবাড়ীয়ার ৭ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জাহিদুল আলম তুহিন জানান, সকালে মোক্তারের স্ত্রী মনিরা তাকে ফোন দিয়ে বলে তিনি তার স্বামীকে কুপিয়েছেন একটু বাড়ীতে যেতে। তিনি বাড়ীতে গিয়ে আহত অবস্থায় মোক্তারকে দেখতে পান। মোক্তার বাঁচার জন্য আকুতি করছিলো। তাৎক্ষনিক এ্যাম্বুলেন্সের মাধ্যমে মোক্তারকে শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসি।

তিনি আরো জানান, মোক্তার ও তার স্ত্রী সাথে পারিবারিক কলহ দীর্ঘ দিনের। এর নিয়ে ৩/৪ বার শালিশ বিচার ও করেছেন তিনি। কাউনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরুল ইসলাম জানান, পারিবারিক কলহের)জ্বের ধরে মোক্তারের স্ত্রী, ছেলে ও মেয়ে মিলে তাকে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিক ভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তাই এ ঘটনায় ইতো মধ্যে ওই তিন জনকে আটক করা হয়েছে। তবে ছেলে মেয়েদের বাচানোর জন্য মা মনিরা একাই হত্যা করেছে বলে দাবী করছেন।

তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। পাশাপাশি লাশ হাসপাতাল থেকে উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এদিকে স্থানীয় সূত্র একটি সূত্র দাবী করেছে, মোক্তারকে কুপিয়ে আহত করার পূর্বে পারিবারিক কলহের জের ধরে মেয়েকে মারধর করে।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *