April 13, 2024, 11:54 am
শিরোনাম :

রাঙ্গাবালীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, নারী ও বৃদ্ধসহ আহত -৩

স্টাফ রিপোর্টার ; রাঙ্গাবালি

পটুয়াখালী জেলা রাঙ্গাবালী উপজেলার ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের ০৫ নং ওয়ার্ডে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে ০৩ জন নারীসহ ষাট বছর এক বৃদ্ধ আহত হয়েছে ।

বৃহস্পতিবার ৯ ডিসেম্বর সকালে আনুমানিক ১০ ঘটিকার সময় নাছিমা বেগম রাঙ্গাবালী থানার ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের তিল্লায় নুরহোসেন প্যাদা বাড়ির দক্ষিণ পাশে এঘটনা ঘটে।

ঘটনা ও মামলা সূত্রে জানা যায় ০৯/১২/২০২১ ইং তারিখ সকাল আনুমানিক ১০ ঘটিকার সময় নাছিমা বেগম রাঙ্গাবালী থানার ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের তিল্লায় নুরহোসেন প্যাদা বাড়ির দক্ষিণ পাশে জমিতে তাহার পালিত ছাগল নিয়ে যাওয়ার সময় ০১ নং আসামি মোঃ বাবু হাওলাদার (২০) পিতাঃ খোরশেদ হাওলাদার এর সাথে কথা কাটাকাটি হয় তখন সকল আসামীরা উত্তেজিত হইয়া নিলুফা বেগম কে এলোপাতাড়ি মারপিট করে তার ডাক চিৎকারে শুনে তার শশুর নূর হোসেন প্যাদা তাকে বাঁচানোর জন্য আসলে বাবু হাওলাদার বাশের লাঠি দ্বারা তার কপালে সজোড়ে আঘাত করে গুরুতর রক্তাক্ত যখম করে তার পকেট থেকে ধান বিক্রির করা ২৫,০০০ হাজার টাকা নিয়ে যায় এবং পরে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে গলাচিপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে।

আরও পড়ুন- পরকীয়া সন্দেহে স্ত্রী-সন্তানকে গলা কেটে হত্যা

আহতরা হলেন ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের ০৫ নং ওয়ার্ডের মোঃ নূর হোসেন প্যাদা (৬০) পিতাঃমৃত আইনুদ্দিন প্যাদা, মোসাঃ নিলুফা বেগম (৪৫) স্বামীঃনূর হোসেন প্যাদা, মোসাঃ নাছিমা (৩৫) স্বামীঃ মোঃ নাসির প্যাদা ও মোসাঃ খাদিজা আক্তার মনিরা (১৪) পিতাঃ মোঃ নাসির প্যাদা।

বর্তমানে আহতরা গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মোঃ নূরহোসেন প্যাদা গণমাধ্যম কে জানান আমাকে এবং আমাদের পরিবারকে হত্যা করার উদ্দেশ্য খোরশেদ আলমের ছেলে বাবু হাওলাদার আমাকে আমার স্ত্রী আমার পুত্রবধূকে এবং ১৪ বছর বয়সী নাতনীকে মারাত্মক ভাবে যখম করে বর্তমানে আমরা গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছি আমরা এর যথাযথ বিচারের দাবী জানাই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা