যে হাটে মন চাইবে সে হাটে পশু নামাবে বিক্রেতারা : বিএমপি কমিশনার

বরিশাল :

দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে সড়ক ও নৌ-পথে কোরবানীর পশু নিয়ে বরিশালে আসবেন বিক্রেতারা। তারা যে হাটে চাইবে সে হাটে তাদের পশু নিয়ে যাবে। এতে কোন হাটের ইজারাদার বা সংশ্লিষ্টরা কেউ বাধা দিতে পারবে না।

ঈদ উল আযহা উপলক্ষে বরিশাল মেট্রোপলিটন এলাকার পশুর হাট ইজারাদার ও সিভিল প্রশাসনেন সঙ্গে মতবিনিময় সভায় বিএমপি কমিশনার এসএম রুহুল আমিন এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, পাইকার বা পশু ক্রেতাদের হাটে পশু নেয়ায় বাধা দেয়া হচ্ছে বা জোর করে নামিয়ে রাখা হয়েছে এমন অভিযোগ পেলে হাটের ইজারাদার সহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে। প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট হাটের ইজারা বাতিল করা হতে পারে বলে হুশিয়ার দেন তিনি।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে বরিশাল নগরীর পুলিশ লাইনস এর ইন সার্ভিস ট্রেনিং সেন্টারে অনুষ্ঠিত সভায় পুলিশ কমিশনার আরো বলেন, বরিশাল মেট্রোপলিটন এলাকার ২১টি পশুর হাটে পুলিশের পক্ষ থেকে সর্বাত্তক নিরাপত্তা ব্যাবস্থা জোরদার করা হবে। প্রত্যেকটি হাটে বিএমপি পুলিশের পক্ষ থেকে একটি করে জাল নোট সনাক্ত করন মেশিন দেয়া হবে। পাশাপাশি হাটগুলোতে ব্যবসায়ী ও ক্রেতা-বিক্রেতার নিরাপত্তার জন্য অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প বসানো হবে। এছাড়া প্রত্যেকটি হাটে যাতে করে ভ্রাম্যমান হকার প্রবেশ না করতে পারে সে বিষয়ে নজর রাখতে হবে।

এসময় ইজারাদারদের পক্ষ থেকে হাটগুলোতে অজ্ঞান এবং মলম পার্টি সহ প্রতারকদের বিরুদ্ধে মাইকের মাধ্যমে সতর্কতা মূলক প্রচারনার নির্দশনা দেন তিনি।

পাশাপাশি স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় এবং সড়ক যোগাযোগ মন্ত্রনালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সড়ক-মহা সড়কের পাশে হাট না বসানোর জন্য অনুরোধ জানান পুলিশ কমিশনার।

মতবিনিময় সভায় হাটের ইজারাদার, প্রানি সম্পদ কর্মকর্তা, বিসিসি কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসন, সিভিল সার্জন, ফায়ার সার্ভিস, ট্যানারী (পশুর চামরা) ব্যাবসায়ী, র‌্যাপিট এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব), ডিজিএফআই, এনএসআই সহ বিভিন্নন সরকারী দপ্তরের কর্মকর্তারা তাদের পক্ষ থেকে গৃহীত ঈদ প্রস্তুতির নানা দিক তুলে ধরেন।

সভায় অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার সায়েদুর রহমান, বরিশাল শের-ই-বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় হাসপাতালের পরিচালক ডা. এস.এম সিরাজুল ইসলাম, উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) গোলাম আব্দুর রউফ খান, উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) আবু রায়হান মো. সালেহ প্রমূখ।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *