মির্জাগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে চায় আবু বকর সিদ্দিকী


আবু বকর সিদ্দিকী


আসন্ন পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলার নৌকার মাঝি হতে চান সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি, সাবেক সফল ভাইস চেয়ারম্যান, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খান মোঃ আবু বকর সিদ্দিকী।

আবু বকর সিদ্দিকী শিক্ষা জীবন থেকে ছাত্র রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। ২০০২ সাল পর্যন্ত চার দলীয় ঐক্যজোটের সময় সুবিদখালী ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন। এ সময় মিথ্যা মামলায় তিনি দির্ঘী দিন কারাবাস করেন। ২০০২ সালে উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক এবং ২০০৪ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি দায়িত্ব পালন করেন। উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি থাকা কালীন সময় ২০০৯ সনে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী হিসাবে বিপুল ভোটে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ২০১৪ সালে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্দিতা করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এছাড়াও ২০১৭ সালে সমাজ সেবায় বরিশাল বিভাগে শ্রেষ্ঠ উপজেলা চেয়ারম্যান পদক লাভ করেন। জনপ্রতিনিধি ও রাজনীতির পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকে সেবা মূলক কাজ করে যাচ্ছে তিনি।

খান মোঃ আবু বকর সিদ্দিকীর সাথে আলাপ করলে তিনি জানান, উপজেলা চেয়ারম্যান হিসাবে উপজেলা ব্যাপক উন্নয়ন করতে সক্ষম হয়েছি। ২০০৪ সালে চার দলীয় জোট সরকারের স্বৈরাচারী বিরোধী আন্দোলনের উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হিসাবে সক্রিয় ভাবে ভূমিকা পালন করেছি। ২০১২ সালে উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মলনে সাধারন সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দিতা করে ১৪১ ভোটের মধ্যে ৪৭ ভোট পেলেও আমাকে উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্পদক মন্ডলী কিংবা সদস্যের তালিকা রাখা হয়নি। দ্বিতীয় বারের মতো উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে, মির্জাগঞ্জ উপজেলাকে একটি আধুনিক, সমৃদ্ধিশীল ও উন্নয়নের রোল মডেল হিসাবে গড়ে তুলব। আশা করছি দল আমার ত্যাগ, অতীতের রাজনৈতিক কর্মকান্ড বিবেচনা করে দলীয় মনোনয়ন দেবে।


৭১বিডি২৪ডটকম/মোঃ সোহাগ হোসেন/মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী)

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *