মির্জাগঞ্জে ৫২টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের পদ শুণ্য॥

সোহাগ হোসেন, মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী):

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫২ প্রধান শিক্ষকের পদ দীর্ঘ দিন শুন্য রয়েছে। ফলে এসব বিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে।

উপজেলা শিক্ষা অফিস ঘটনা সত্যতা স্বীকার করে জানান, শুন্য পদ গুলো পূরনের জন্য সংশ্লিষ্ট অধিদপ্তরকে জানানো হয়েছে। মির্জাগঞ্জ উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে ১৪২টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। ১৪২টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ৫২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের পদ দীর্ঘ দিন ধরে শুন্য রয়েছে।

এছাড়াও বেশ কিছু সহকারি শিক্ষকের পদ শুন্য রয়েছে। উপজেলার রামপুর, কিসমত শ্রীনগর, চালিতাবুনিয়া, উত্তর চত্রা, দক্ষিন পশ্চিম সুবিদখালী, মির্জাগঞ্জ দরগাহ শরীফ ও ভাজনা মনোহরখালী স: প্রা: বিদ্যালয়সহ মোট ৫২টি বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের পদ দীর্ঘ দিন শুণ্য বলে শিক্ষা অফিস সূত্রে জানিয়েছে।

কিছু কিছু বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকসহ মাত্র ৩/৪ জন শিক্ষক রয়েছে। প্রধান শিক্ষক না থাকায় ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষককে দিয়ে কার্যক্রম চালাতে হচ্ছে। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক প্রশাসনিক কাজে শিক্ষা কার্যালয়ে গেলে শিক্ষকের অভাবে বিদ্যালয়ে শিক্ষা কার্যক্রম বিঘিœত হয়।

মির্জাগঞ্জ দরগাহ শরীফ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বিজয় চন্দ্র দেবনাথ বলেন, প্রায় ২ বছর আমাদের স্কুলে প্রধান শিক্ষকের পদ শুণ্য। এতে শিক্ষা কার্যক্রম মারাত্মকভাবে ব্যহত হচ্ছে।

মির্জাগঞ্জ উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি মোঃ আঃ রাজ্জাক বলেন, প্রধান শিক্ষক ছাড়া বিদ্যালয়ের শিক্ষার মান ও প্রশাসনিক কার্যক্রম ঠিক রাখা অসম্ভব। উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষা কমিটির সভায় এ বিষয়ে একাধিকবার বলা হয়েছে।

এ ব্যাপারে মির্জাগঞ্জ প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ মিজানুর রহমান জানান সংশ্লিষ্ট বিভাগ শিক্ষক নিয়োগ না দেওয়ায় পদ গুলো পূরন করা যাচ্ছে না। শিক্ষার সুষ্ঠ পরিবেশে ফিরিয়ে আনতে শুন্য পদ গুলো পূরন খুবই জরুরী। অতি শ্রীঘ্রই পদোন্নতি ও স্থায়ী ভাবে নিয়োগের মাধ্যমে শুন্য পদ গুলোতে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *