মির্জাগঞ্জে ময়না তদন্ত ছাড়া বিদ্যুৎপৃষ্ট শ্রমিকের লাশ দাহ

313

:: ৭১বিডি২৪ডটকম :: মোঃ সোহাগ হোসেন ::


মির্জাগঞ্জ


:: মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী) :: পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলার বাজিতা গ্রামের সুখরঞ্জন হাওলাদার(৩৫) নামে এক গাছকাটা শ্রমিকের লাশ ময়না তদন্ত ছাড়া দাহ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল বুধবার বিকালে উপজেলা চৈতা গ্রামে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, মির্জাগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ অফিসকে অবহিত না করে গাছ ব্যবসায়ী আব্দুস সালাম গাছকাটা শ্রমিক সুখরঞ্জন, শাহীন হাওলাদার ও মো. শামসুকে নিয়ে বুধবার সকালে উপজেলার চৈতা গ্রামের আবু ইউসুফ বালিকা বিদ্যালয় সংলগ্ন সড়কের পাশে তার ক্রয়কৃত গাছ কাটতে যায়। গাছটি কেটে নিচে নামানোর সময় পাশে পল্লী বিদ্যুতের ১১ হাজার ভোল্টের একটি তার ছিড়ে গাছে জড়িয়ে যায়। শ্রমিক সুখরঞ্জন গাছে জড়ানো বিদ্যুতের তারটি ছাড়াতে গেলে বিদ্যুতায়িত হয়ে ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়। এ খবর পেয়ে মির্জাগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তে না পাঠিয়ে গাছ ব্যবসায়ীর সাথে অর্থের বিনিময়ে দফারফার অভিযোগ উঠেছে। ওই দিনই বিকালে সুখরঞ্জনের লাশটি দাহ করা হয়।

এ ব্যাপারে গাছ ব্যবাসায়ী আব্দুস সালাম জানান,গাছ কাটার সময়ে দুর্ভাগ্যক্রমে বিদ্যুতের তারের ওপর পড়েছে। বিদ্যুৎ নেই ভেবে শ্রমিক তারটি ছাড়াতে গেলে হঠাৎ বিদ্যুৎ এসে পরলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয় কাঁঠালতলী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ইনচার্জ মো. রফিক খানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বিদ্যুতের তার সংলগ্ন গাছ কাটার সময় অবশ্যই আমাদের অবহিত করা উচিত ছিল।

মির্জাগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মাসুমুর রহমান বিশ্বাস বলেন, নিহতের পরিবারের কোন অভিযোগ নেই। তবে শুনেছি গাছ ব্যবসায়ী আবদুস সালাম নিহতের পরিবারকে কিছু টাকা দিয়ে সাহায্যে করেছে কিন্তু থানা পুলিশের সাথে কোন টাকার লেনদেন হয়নি।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.