মির্জাগঞ্জে ঘূর্নিঝড় ফনির প্রভাব জোয়ারের পানিতে ৪গ্রাম প্লাবিত


মির্জাগঞ্জে ঘূর্নিঝড় ফনির প্রভাব জোয়ারের পানিতে ৪গ্রাম প্লাবিত


ঘূর্নিঝড় ফনির প্রভাবে পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলার পায়রা নদীতে জোয়ারের পানি বৃদ্ধি পেয়ে বেড়িবাঁধ উপচে পানি প্রবেশ করে চার গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার দেউলী সুবিদখালী ইউনয়নের মেহেন্দিয়াবাদ গ্রামের প্রায় দেড়শ ফুট ভাঙ্গা বেড়িবাঁধ দিয়ে জোয়ারের পানি প্রবেশ করে মেহেন্দিয়াবাদ, গোলখালী, চরখালী ও রাণীপুর গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ আল জাকী জানান, ঝুকিঁপূর্ণ এসকল এলাকার বাসিন্দাদের শুক্রবার দুপুরের আগেই আশ্রয় কেন্দ্রে নেয়া হয়েছে। এ ছাড়াও পায়রা নদী বেষ্টিত উপজেলার সর্বমোট ৪২টি আশ্রয় কেন্দ্রে প্রায় দুই হাজার লোককে আশ্রয় দেয়া হয়েছে। তাদের জন্য পর্যাপ্ত শুকনো খাবার সংরক্ষিত রয়েছে। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত উপজেলার কোথাও কোন ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। তবে সর্বত্র আতঙ্ক বিরাজ করছে। ২০০৭ সালে সুপার সাইক্লোন সিডরে মির্জাগঞ্জে ১১৬ জন লোক নিহত হয়েছিল।

মির্জাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খান মো. আবু বকর সিদ্দিকী বলেন, ২০০৭ সালের ১৫ নভেম্বর রাতে ঘূর্ণিঝড় সিডরের তান্ডবে বাঁধ ভেঙে প্রবল জলেচ্ছ¡াসে লন্ডভন্ড করে দিয়েছিল পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের পায়রা পাড়ের বাড়িঘর,গাছপালা, কেড়ে নিয়েছিল ১১৬ জন নারী পুরুষ ও শিশুর প্রাণ। এমনিতেই পায়রা পাড়ের বন্যানিয়ন্ত্রন বাঁধ অনেকাংশে ক্ষতিগ্রস্ত । তাই ঘূর্ণিঝড়ের খবরে বাঁধের পারের মানুষ কিছুটা হলেও আতঙ্কিত হয়ে পরে।


৭১বিডি২৪ডটকম | সোহাগ হোসেন | মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী)

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *