মির্জাগঞ্জে এডিপির বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ না করে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

৭১বিডি২৪.কম | মোঃ সোহাগ হোসেন:


মির্জাগঞ্জে এডিপির বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ না করে টাকা আত্মসাতের অভিযোগমির্জাগঞ্জ(পটুয়াখালী): পটুয়াখালী মির্জাগঞ্জ উপজেলায় বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) প্রকল্পের কাজ না করে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। এ অভিযোগ উঠেছে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে। এদের দু’জনের যোগসাযশে প্রকল্পের কাজ না করে আবার কোন কোন প্রকল্পের নামে মাত্র কাজ করিয়ে বিপুল অংকের টাকা আত্মতাৎ করা হয়েছে বলে জানা যায়।

মির্জাগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশল অফিস সূত্রে জানা যায়, ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে অত্র উপজেলায় বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির সাধারন বরাদ্ধ ৩৭ লক্ষ টাকা এবং বিশেষ বরাদ্ধ ১ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা ও রাজস্ব তহবিল থেকে ৩৫ লক্ষ টাকা এবং বিভিন্ন ভবন মেরামতের জন্য ৪০ লক্ষ টাকা পাওয়া যায়। এর মধ্যে উন্মুক্ত দরপত্রের মাধ্যমে ২৯টি প্রকল্পে ১ কোটি ৭৩ লক্ষ ৪৫ হাজার ৪ শত টাকা দরপত্র আহবান করা হয়। অভিযোগে জানা যায় এ প্রকল্পগুলোর মধ্যে ২৮টি প্রকল্পের কাজ কোন রকম সম্পুর্ন করা হলেও ২৯নং প্যাকেজে উপজেলা পরিষদের নন গেজেটেড কোয়াটার (বিআরডিবি) শাপলা, উপজেলা প্রকৌশলীর অফিস মেরামত সহ ২টি কক্ষ বর্ধিত করনের জন্য ৪০ লক্ষ টাকা বরাদ্ধের কাজটি লটারীর মাধ্যমে ঠিকাদার নির্বাচিত করা হয়। লটারীতে মেসার্স আনাম এন্টারপ্রাইজের ঠিকাদার কাজ টি পায়।

সরেজমিনে দেখা যায় এই প্যাকেজে নন গেজেটেড কোয়াটার (বিআরডিবি) শাপলা নাম মাত্র মেরামত করা হলেও উপজেলা প্রকৌশলীর অফিস মেরামত সহ ২টি কক্ষ বর্ধিত করন কাজের আদৌ কোন চিহ্ন খুজে পাওয়া যায়নি। অথচ সমুদয় বিল ৩০ জুন ফেরত যাওয়ার অজুহাত দেখিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান খান মোঃ আবু বকর সিদ্দিকী ও উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ সুলতান হোসেনকে ম্যানেজ করে ঠিকাদার উত্তোলন করে নিয়েছে। এছাড়াও একই অজুহাত দেখিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা প্রকৌশলী বরাদ্ধকৃত ৪টি প্রকল্পের ৪০ লক্ষ টাকা এবং সিপিসির নামে বিভিন্ন প্রকল্প দেখিয়ে নামে মাত্র কাজ করিয়ে বিপুল অংকের টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ সুলতান হোসেন বলেন কাজ হয়নি সত্য, আমি ঠিকাদারের নিকট থেকে পে-অর্ডার রেখেছি। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খান মোঃ আবু বকর সিদ্দিকী বলেন, বরাদ্ধ কম আসায় আমি এ কাজের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয় যোগাযোগ করেছি।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *