বসন্তের শুরুতে ত্বকের যত্ন

(৭১বিডি২৪)লাইফস্টাইল:

ঋতু পরিবর্তনের ধারাবাহিকতায় এবার শীতের বিদায় নেয়ার পালা। বসন্তের আগমনে প্রকৃতি সেজেছে নতুন রূপে। রোদের সাথে ঠাণ্ডা এক হাওয়া যেন ছুঁয়ে যায় ত্বকে। প্রকৃতির এই না শীত না গরম আবহাওয়ায় ত্বকে দেখা দেয় নানা সমস্যা। শুষ্কতা আর রুক্ষতার কারণে এ সময় প্রকৃতিতে ধুলোবালি বেড়ে যায়। তাই এই ঋতুতে ত্বকের দরকার বিশেষ যত্ন। চলুন জেনে নেই এই সময়ে ত্বকের যত্ন নেয়ার উপায়-

গোসলের আগে লেমন টারমারিক ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। এই ক্রিম শুধু ত্বক নরম করে না, সঙ্গে সঙ্গে ত্বকের কালোভাব, সানট্যানের দাগ দূর করতে সাহায্য করে। সাবান ও ক্লোরিনযুক্ত পানি ব্যবহারের ফলে ত্বকের যা ক্ষতি হয়, তা থেকে ত্বককে রক্ষা করতেও এই ক্রিম সাহায্য করে। হলুদের অ্যান্টিসেপ্টিক উপাদান ত্বকে ইনফেকশন প্রতিরোধ করে।

বাড়ি থেকে বের হওয়ার আগে সানস্ক্রিন লাগাতে ভুলবেন না। কারণ সূর্যের রশ্মির প্রভাবে অনেক সময় ত্বক ময়েশ্চার হারিয়ে ফেলে। মধু ব্যবহার করতে পারলে ত্বক ভালো থাকবে। মধু ন্যাচারাল ময়েশ্চারাইজারের কাজ করে। মধুর সঙ্গে অল্প আমন্ড অয়েল অথবা ডিমের কুসুম মিশিয়ে প্রতিদিন মুখে লাগান ১৫ মিনিট রেখে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

নির্জীব ত্বকে ক্লান্তিভাব দূর করতে মুসুর ডালের পেস্ট ও ধনেপাতার রস মিশিয়ে মুখে আধ ঘণ্টা লাগিয়ে রাখুন। পরে ঠাণ্ডা পানির ঝাপটা দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ডাবের পানি, গোলাপ জল, পাতিলেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগান। আধঘণ্টা পর ধুয়ে ক্রিম লাগান। মুখের ছোপ দূর করতে টমাটো জুস, কাঁচা হলুদের রস ভূসিসমেত আটা মিশিয়ে মুখে, গলায় লাগান। গোলাপজল দিয়ে মুছে নিন।

তৈলাক্ত ত্বকে পাতিলেবুর রস, নিমপাতার রস, মুলতানি মাটি মিশিয়ে পুরো মুখে লাগান। আধাঘণ্টা পর ঠাণ্ডা পানির ঝাপটা দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। কাচা হলুদের রস, মুলতানি মাটি মিশিয়ে মুখে লাগান। প্যাক শুকিয়ে গেলে গোলাপজল দিয়ে মুছে নিন। কমলালেবুর খোসা বাটা, চালের গুঁড়ো সমপরিমাণ মিশিয়ে লাগান। প্যাক আধা শুকনো হলে প্রথমে দুধ লাগিয়ে স্ক্রাব করে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

যাদের শুষ্ক ত্বক তারা এ সময় নিয়মিত গ্লিসারিন সাবান দিয়ে গোসল করবেন। গোসলের পর ভেজা শরীরে ভ্যাসলিন, লোশন বা এ ধরনের প্রসাধনী ব্যবহার করলে ত্বকে আদ্রভাব বজায় থাকবে।

কমলালেবুর রস ও ওটমিল সমপরিমাণে মিশিয়ে লাগান। পাকা পেঁপে চটকে মধু মিশিয়ে মুখে, হাতে, গলায় লাগান। বিশ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। গোলাপের পাপড়ি, দুধের সর বাটা, মধু মিশিয়ে লাগান। ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন।

ধুলাবালি থেকে চুল রক্ষা করতে মাথায় স্কার্ফ বেঁধে রাখতে পারেন। নারকেল তেল ও জলপাইয়ের তেল একসঙ্গে গরম করে চুলে ম্যাসাজ করে শ্যাম্পু করলে চুল হয় ঝরঝরে। এ ছাড়া চুলের বাড়তি যত্নে টক দই, কলা, পেঁপে দিয়ে ঘরে তৈরি প্যাক ব্যবহার করলে চুল ভালো থাকে।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *