বরিশালে বিপুল পরিমানের নিষিদ্ধ ঔষধ জদ্ধ ॥ আটক-৩

বরিশাল :

উৎপাদন নিষিদ্ধ কোম্পানির বিপুল পরিমান ঔষধ জব্দ করেছে বরিশাল আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)। রোববার বেলা সাড়ে ১১ টার বরিশাল নগরের সিএন্ডবি রোড কাজীপাড়া সংলগ্ন এলাকার একটি দ্বিতল ভবনে অভিযান চালিয়ে এ ঔষধ জব্দ করা হয়। অভিযানে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) এর সদস্যদের এ অভিযানে ঔষধ প্রশাসনের কর্মকর্তারা সহায়তা করেন। অভিযানের নেতৃত্ব প্রদান কারী এপিপিএন’র সহকারী পুলিশ কমিশনার আসাদুজ্জামান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আজ সকালে তারা এ ভবনটিতে অভিযান চালান। এসময় তারা কয়েকবছর পূর্বে উৎপাদন নিষিদ্ধ হওয়া হলি ড্রাগস ল্যাবরেটরীজ এর বিপুল পরিমান ঔষধ পান। যার মধ্যে যৌন উত্তেজক ঔষধের পরিমানই বেশি। বিভাগের এই ডিষ্ট্রিবিউশন হাউজ থেকে আনুমানিক মূল্য ১৫ লক্ষ টাকার ঔষধ জব্দ করা হয়েছে বলে জানান তিনি। তিনি আরো জানান, এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অপরাধে ওই বিক্রয় কেন্দ্রের স্টোর কিপার মো. মিরাজ, ক্যাশিয়ার নজরুল ইসলাম ও ইনচার্য রিয়াজুল ইসলাম নামে ৩ জনকে আটক করা হয়। পুলিশের ধারনা নিষিদ্ধ এ ঔষধ এখানে এনে বরিশাল বিভাগের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করা হয়। বিশেষ করে গ্রাম-গঞ্জে সবচেয়ে বেশী এই ঔষধ বিক্রি করা হয়। এ ব্যপারে বরিশাল ঔষধ প্রশাসনের ড্রাগস ইন্সেপেক্টর বিথি রানী মন্ডল জানান, গত তিন বছর পূর্বে হলি ড্রাগস ল্যাবরেটরীজ’র উৎপাদন (উৎপাদন ব্যাচ ইউ-৭৬ নং) নিষিদ্ধ ঘোষনা করা হয়। কিন্তু গোপনে কতিপয় মানুষ নিষিদ্ধ ও ওই কোম্পানীর ঔষধ বাজারজাত করে আসছে। এ কারনেই এই ঔষধ গুলো জদ্ধ করা হয়। এখানে ২০ ধরনের ঔষধ রয়েছে। যারমধ্যে মুনইশ নামের (যৌন উত্তেজক)ঔষধ বাজারে বেশি দেখা যায়। উল্লেখ্য অভিযানকালে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল এপিপিএন’র ইন্সেপেক্টর শফিকুল আলম চৌধুরী ও আলী আহম্মেদ উপস্থিত ছিলেন। এদিকে, আটককৃতদের দুপুরে ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করা হয়। আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুখময় সরকার জানান, এদের মধ্যে এরিয়া ম্যানেজার রিয়াজুল ইসলামকে ১০ দিনের কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। তবে বাকি দু’জনের বয়স কম এবং কলেজের ছাত্র হওয়ায় তাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে। ওষুধগুলো ধ্বংস করা হবে বলে জানান তিনি।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *