বরিশালে ওষুধ কারখানায় র‌্যাবের অভিযান, ৩ লাখ টাকা জরিমানা

৭১বিডি২৪ডটকম ॥ করেসপন্ডেন্ট;


বরিশাল


বরিশাল : বরিশালের ইন্দো বাংলা ফার্মসিউটিক্যালস্ নামে একটি ওষুধ কারখানায় অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব-৮ এর সদ্যসরা। এ অভিযানে বিপুল পরিমান রেজিষ্ট্রেশন বিহীন ও অনুনমোদিত ৭ ধরনের ওষুধ জব্দ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দিবাগত রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-৮ এর উপ অধিনায়ক মেজর রাকিব উজ জামান। তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ইন্দো বাংলা ফার্মসিউটিক্যালস নামের ওষুধ কারখানায় মঙ্গলবার দুপুর থেকে অভিযান চালায় র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১১ টার দিকে ওষুধ প্রশাসনের কর্মকর্তার উপস্থিতিতে যাচাই-বাছাই শেষে নিশ্চিত হওয়া যায় বিভিন্ন নামের ৫ টি রেজিষ্ট্রেশন বিহীন ওষুধ এবং ২ টি অনুনোমদিত ওষুধ উৎপাদন করে আসছে কারখানাটি।

পরে রাত জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে নির্মানাধীন গুদামের দ্বিতীয় তলায় অভিযান চালিয়ে প্রায় শত কাটুন ভর্তি ৭ ক্যাটাগরির প্রায় ১৮ লাখ টাকার ওষুধ জব্দ করা হয়। যারমধ্যে নিওসটিন আর-১৫০, রেনিটিডিন-১৫০, মেট্রল, ইন্দোপ্রোক্স মিক্স-৫০০, রিবোফ্লোবিন, ডাইক্লোফেনাক নামের ওষুধ রয়েছে। এসব ওষুধের মধ্যে নিওসটিন আর-১৫০ ও ইন্দোপ্রোক্স মিক্স-৫০০ উৎপাদনের কোন অনুমতি এবং বাকি ওষুধগুলো উৎপাদনের জন্য কোন রেজিস্ট্রেশন নেই।

এদিকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ওষুধ কোম্পানিকে ৩ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ মসের কারাদন্ড প্রদান করা হয় এবং জব্দ ওষুধ গুলো ধ্বংস করার নির্দেশনা প্রদান করা হয় বলে জানিয়েছেন র‌্যাব-৮ এর উপ অধিনায়ক মেজর রাকিব।

তিনি আরো জানান, জব্দ হওয়া ওষুধগুলোর মধ্যে অনেক ওষুধই বাজারজাত করে আসছিলো ইন্দো বাংলা। যা বাজার থেকে ফিরিয়ে আনার জন্যও ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানিয়েছেন র‌্যাব-৮ এর উপ অধিনায়ক মেজর রাকিব।

এ বিষয়ে ওষুধ প্রশাসন বরিশালে ড্রাগ সুপার তানভীর আহম্মেদ জানান, যেসব ওষুধ জব্দ করা হয়েছে সেগুলো আনরেজিস্ট্রার্ড প্রডাক্ট। ১৯৪০ সালের ড্রাগ এ্যাক্টে কতৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। প্রশাসনের কাছে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকলে শুধু এই কোম্পানি নয় যে কোন কোম্পানিতে অভিযান চালানো হবে এবং আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানান ভা্ম্যমান আদালতের বিচারক জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট (সহকারী কমিশনার) রিপন বিশ্বাস।

অপরদিকে সকল ওষুধ যথাযথ নিয়ম মেনেই উৎপাদন ও বাজারতকরন হচ্ছে বলে দাবী করছেন ফার্মাসিউটিক্যালসটির ম্যানেজিং ডিরেক্টর এ এফ এম আনোয়ারুল হক সাব্বির। কিছু কাগজপত্র অনুমোদন প্রাপ্তির প্রসেসিং এ রয়েছে বলেও জানান তিনি।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *