মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ০৬:৩৯ অপরাহ্ন

বরগুনায় গভীর রাতে মাইকিং করে ইলিশ বিক্রির ধুম

তরিকুল ইসলাম রতন, বরগুনাঃ-- / ৮৮ ভোট :
প্রকাশ : বুধবার, ২৭ জুলাই, ২০২২

বরগুনা পৌর শহরের মাছ বাজারে গভীর রাতে মাইকিং করে রুপালি ইলিশ বিক্রির ধুম পরেছে।
প্রতি কেজি ইলিশ ৭০০ টাকা থেকে ৮০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করা হয়েছে । অন্য দিনের তুলনায় দাম কম থাকায় ক্রেতারা ভিড় জমাচ্ছে।

মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) রাত সাড়ে ৯টার দিকে বরগুনা পৌরসভার মাছ বাজারে এমন চিত্র দেখা গেছে।

এবিষয়ে ইলিশ বিক্রেতা আবদুল জলিল মোল্লা জানান, বরগুনার পার্শ্ববর্তী জেলা পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার কুয়াকাটা মহিপুর থেকে বিকেলে কয়েক মন মাছ বিক্রি জন্য এই বাজারে নিয়ে এসেছি। স্থানীয় বাজারের দামের তুলনায় মহিপুর ইলিশের দাম কিছুটা কম থাকার কারণে ক্রেতারা ভিড় জমাচ্ছে। আমারা বরগুনা পৌর শহরের বিভিন্ন জায়গায় মাইকিং করে সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছি। প্রতি পিচ ৫০০ থেকে ৬০০ গ্রাম ইলিশের প্রতি কেজির দাম নির্ধারণ করেছি ৭০০ টাকা এবং ৭০০ থেকে ৮০০ গ্রাম ওজনের মাছ বিক্রি করছি ৮০০ টাকা কেজি দরে। ক্রেতারা খুঁশি ও আনন্দে মাছ কিনে নিচ্ছে।
তিনি আরও জানান , সবগুলো ইলিশ বিক্রি হওয়ার আগ পর্যন্ত এভাবেই আমরা মাইকিং করে বিক্রি করব।

রিপন নামের এক ক্রেতা বলেন, বাজারের তুলনায় এই ইলিশের দাম একটু কম থাকার কারণে আমি তিন কেজি ইলিশ মাছ কিনেছি। মাছগুলো তাঁজা তাই কিনে নিলাম।

ছগির নামের আরেক ক্রেতা বলেন, শুনলাম মাইকিং করে ইলিশ বিক্রি হচ্ছে। তাই বাজারে আসলাম। দাম কম এবং ইলিশ তাজা হলে কিনব। সুযোগ বুজে আর কি।

এবিষয়ে বরগুনা জেলা বিএফডিসির মার্কেটিং অফিসার বিপ্লব কুমার সরকার জানান, গত দুই দিনে বিএফডিসি মৎস্য বাজারে মোট ৩৮ হাজার ১৫ কেজি মাছ বিক্রি হয়েছে। তার মধ্যে ইলিশ বিক্রি হয়েছে ২২ হাজার ২১৭ কেজি অন্যান্য সামুদ্রিক মাছ বিক্রি হয়েছে ১৫ হাজার ৭৯৮ কেজি। মোট মাছ বিক্রি হয়েছে ১ কোটি ৯৫ লাখ ৮৯ হাজার ৬০০ টাকা।


আপনার মতামত লিখুন :
0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
আরো সংবাদ...

নিউজ বিভাগ..