পুত্রবধুর করা প্রতারনা মামলার শশুর ও দেবরের কারাদন্ড

৭১বিডি২৪ডটকম ॥ করেসপন্ডেন্ট;


মামলা


বরিশাল : পুত্রবধুর করা প্রতারনা মামলার শশুর ও দেবরের পৃথক মেয়াদে কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। এর মধ্যে শশুর আবুল কাশেম ডাকুয়াকে ৫ বছর ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৩ মাস ও দেবর মামুনকে ২ বছর ৩ হাজার অনাদায়ে আরো ১ মাসের কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে।

সোমবার অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. শিহাবুল ইসলাম এ রায় ঘোষনা করেন। রায় ঘোষনার সময় উজিরপুর নরসিংহপুর গ্রামের বাসিন্দা আবুল কাশেম আদালতে উপস্থিত থাকলেও তার ছেলে মামুন পলাতক রয়েছে। আদালতের বেঞ্চসহকারি শাহাদাৎ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আদলত সূত্র জানায়, আবুল কাশেম ডাকুয়ার বড় ছেলে মিজানুর রহমান একই গ্রামের বাসিন্দা রুনু আক্তার লাকিকে বিয়ে করে। বিয়ের পর রুনুর দুইটি কন্যা সন্তান হলে মিজান দুবাই চলে যায়। মিজান প্রবাসে থাকাকালীন সময়ে দন্ডিতরা তার স্ত্রী রুনুকে মারধর করে তার বাপের বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। ২০০৬ সালের ৬ আগষ্ট মিজান দুবাই থাকাবস্থায় তার সাক্ষর জাল করে তালাক নামা প্রস্তুত করে ১৪ আগষ্ট রুনুকে তালাকের নোটিশ পাঠায় দন্ডিতরা।

এ ঘটনা রুনু তার স্বামী মিজানকে ফোনে জিজ্ঞেস করলে সে তালাকের বিষয়ে কিছু জানে না বলে প্রকাশ করে। পরবর্তীতে রুনু বাদী হয়ে শ্বশুড়সহ দুই দেবরের বিরুদ্ধে ২০০৮ সালের ১৭ জানুয়ারি উজিরপুর থানায় মামলা করে। একই বছরের ৩১ মার্চ উজিরপুর থানার এসআই রজব আলী আদালতে চার্জশীট দাখির করে। আদালত ৯ জনের সাক্ষগ্রহন শেষে আজ এ রায় প্রদান করেন।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *