পরিবেশ বিপর্যয়ের আশংঙ্কা অনুমতি ছাড়া ইট ভাটা তৈরী

৭১বিডি২৫.কম | এম অহিদুজ্জামান ডিউক;


পরিবেশ বিপর্যয়ের আশংঙ্কা অনুমতি ছাড়া ইট ভাটা তৈরী


বাউফল(পটুয়াখালী): পটুয়াখালীর বাউফলের বগা লঞ্চঘাট এলাকায় পরিবেশ অধিদপ্তরের অনুমতি ছাড়া ইটের ভাটা তৈরি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ইটভাটা বন্ধের দাবিতে এলাকাবাসি এবং পার্শ্ববর্তী ইয়াকুব শরীফ ডিগ্রী কলেজের ৫হাজার ছাত্র ছাত্রীর পক্ষে প্রধানমন্ত্রী, জেলা প্রশাসক, পরিবেশ ও বনকর্মকর্তা সহ সরকারের একাধিক দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে ।

অভিযোগে জানাযায়, বরিশাল – পটুয়াখালী – বাউফল মহাসড়কের উত্তর পাশে জোয়ার চর গরবদী নামক মৌজায় জেগে ওঠা চরে শতাধিক ভুমিহীনদের মধ্যে জেলা প্রশাসন ৭/৮ বছর আগে কার্ডের মাধ্যমে খাস জমি বন্ধোবস্ত দেয়। ইতিমধ্যে বাউফল উপজেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে খাসজমির নর্দ তীরবর্তী এলাকায় কয়েকহাজার ফলজ ও বনজ গাছ লাগানো হয়েছে। এজমিতে ঘড় বাড়ি তৈরিসহ চাষাচাদ করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছে ভুমিহীন কার্ড ধারীরা। হঠাৎ করে মেসার্স হাওলাদার ব্রিকস ফিল্ডের মালিক আঃ মোতালেব হাওলাদার ভুমিহীনদের ঘড় বাড়ি উচ্ছেদ করে দিয়ে ইট ভাটায় কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহারের জন্য এলাকার বনাঞ্চল থেকে কয়েক হাজার মন গাছ কেটে এনে স্তুপ করেছেন। উক্ত ইট ভাটা তৈরি হলে বেড়ি বাঁধের দুপাশে রোপনকৃত উইএনডিপির অর্থায়নে বিভিন্ন প্রজাতির ৫ সহস্রাধিক ঔষধি,বনজ ও ফলজ বৃক্ষের মারাক্তক ক্ষতি সাধিত হবে। ওই ইট ভাটার পূর্ব দক্ষিন পাশে রয়েছে ঘনজনবসতি এলাকা। বিশেষ করে লঞ্চ ঘাট, ফেরি ঘাট, মসজিদ, বিভিন্ন ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, পোষ্ট অফিস, খাদ্য গুদাম ও ডাঃ ইয়াকুব শরিফ ডিগ্রী কলেজ এবং বগা বন্দর বাজার,বগা হাইস্কুল ও মাদ্রাসা। উক্ত স্থানে ইটের ভাটা তৈরি হলে কালো ধোঁয়ায় পরিবেশ বিপর্যায় সহ নির্মল বায়ুর অভাবে ব্যাপক স্বাস্থ্য ঝুঁকির আশঙ্কা রয়েছে। যার ফলে ওই এলাকাটিতে মানুষ বসবাসের অনুপযোগী হয়ে পড়বে। যদিও উক্ত অভিযোগ সম্পর্কে মেসার্স হাওলাদার ব্রিকস ফিল্ডের মালিক আঃ মোতালেব হাওলাদার বলেন, অনুমোদনের জন্য আমি পরিবেশ অধিদপ্তরে আবেদন করেছি।

এ ব্যাপারে বরিশাল বিভাগীয় পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক মোঃ নজরুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাউফলে মেসার্স হাওলাদার কোন ইট ভাটা তৈরির অনুমোদন দেয়া হয়নি। জেলা প্রশাসক একেএম শামিমুল হক সিদ্দিকী বলেন, এত বড় এলাকা এ মূহুর্তে আমি অনুমোদনের ব্যাপারে কিছু বলতে পারছিনা। বাউফল উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুল্লাহ আল মাহাম্মুদ জামান জানান, আমার জানামতে এটার কোন অনুমোদন নেই।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *