February 21, 2024, 2:34 pm

ন্যায্য মূল্যের আটা নিতে আসা ৬০ বছরের বৃদ্ধাকে মারধর করলেন ডিলার

স্টাফ রিপোর্টার ; বরগুনা

বরগুনার পৌরসভার আমতলার পাড় এলাকায় ন্যায্য মূল্যের আটা নিতে আসা ৬০ বছরের বৃদ্ধা আলেয়া বেগমকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে সরকারি ন্যায্য মূল্যের চাল ও আটা বিক্রেতার বিরুদ্ধে।

রোববার (৬ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে বরগুনার আমতলার পাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত ওই ডিলার হলেন নাম মোঃ তরিকুল ইসলাম বাবলু। তিনি বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক।

ভুক্তভোগী আলেয়ার ছেলে সাদ্দাম হোসেন বলেন, আমার বৃদ্ধ মা আলেয়া বেগম। তিনি রবিবার সকালে আমতলার পাড় এলাকায় ডিলার বাবুলের কাছ থেকে সরকারি ন্যায্য মূল্যের তিন কেজি আটা কিনে। পরে ৫০ টাকার একটি নোট ছেড়া দেওয়ায আমার মাকে ঘুষি ও লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দেয়। এতে আমার মা প্রচন্ড ব্যাথা পায়। পরে ওখানতার স্থানীয়রা হসপিটালে নিয়ে যায়। পরে আমি ও আমার বড় ভাই ফোরকান খবর শুনে হাসপাতালে যাই। আমরা গরিব তাই বলে আমাদেরকে এরকম মারধর করবে। আপনাদের মাধ্যমে এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

ভুক্তভোগী আলেয়া বেগম জানান , রবিবার সকালে সকালে আমি ডিলার বাবুলের কাছে তিন কেজি আটা কিনতে যাই। আটার দাম ১৫০ টাকা। ডিলারকে ১০০ টাকার দুটি নোট দেই। ডিলার আমাকে টাকা খুচরা করে দিতে বলে। আমি টাকা খুচরা করে এনে তাকে ১৫০ টাকা দেই। আমার দেয়া ১৫০ টাকার মধ্যে ৫০ টাকার নোট একটু ছেঁড়া থাকায় আমাকে ধাক্কা মেরে ফেলে দিয়ে লাথি ও ঘুসি মারে। পরে আমি ব্যথা পেয়ে কান্নাকাটি করলে স্থানীয় লোকজন আমাকে হাসপাতালে নিয়ে আসে।

এ বিষয়ে প্রত্যক্ষদর্শী জাবের হোসেন বলেন, আমি এখান দিয়ে যাচ্ছিলাম হঠাৎ করে দেখি ন্যায্য মূল্যের চাল, আটা বিক্রেতা তরিকুল ইসলাম বাবুল এক বৃদ্ধ মহিলাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিলে সে প্রচন্ড ব্যাথা পায়।পরে স্থানীয়রা তাকে চিকিৎসার জন্যে হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে কি হয়ে আমি তা জানি না।

অভিযুক্ত ডিলার তরিকুল ইসলাম বাবলু বলেন, ওই বৃদ্ধাকে আমি কোন মারধর করি নাই। উল্টো তাকে তিন কেজি চালের পরিবর্তে ছয় কেজি চাল দিয়েছি।

এবিষয়ে জানতে চাইলে বরগুনা জেলা খাদ্য কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল হাকিম জানান , বাংলাদেশ সরকার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা গরিব মানুষের দুঃখ হৃদয় দিয়ে উপলব্ধি করেন। তারই ধারাবাহিকতায় সারা দেশব্যাপী নিম্নআয়ের অসহায় দরিদ্র মানুষদের জন্য খোলা বাজারে ন্যায্য মূল্যের খাদ্য সামগ্রী প্রদান করেন।

তিনি আরও জানান, আমি ওই নির্যাতিত বৃদ্ধ মহিলার সাথে কথা বলব। এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। সত্যতা পেলে ওই ডিলার বাবুলের বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা