শিরোনাম :
শুক্রবার, ০৭ অগাস্ট ২০২০, ০৩:১৬ পূর্বাহ্ন
নোটিশ বোর্ড :
দেশের সকল বিভাগের জেলা, উপজেলা, থানা পর্যায়ে প্রতিনিধি আবশ্যক আগ্রহী প্রার্থীগন আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। মোবাইল নম্বরঃ +8801618833566, ইমেইলঃ 71bd24@gmail.com

দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে কমেছে পাশের হার! গণিতেই ফেল ১৯ হাজার ২৯৬ জন

রিপোর্টার / ১১৪ শেয়ার
আপডেটের সময়ঃ রবিবার, ৭ জুন, ২০২০

দিনাজপুর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যামিক শিক্ষা বোর্ডের অধিন সদ্য প্রকাশিত এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলে বোর্ডের মোট পরীক্ষার্থী ১ লাখ ৯২ হাজার ৯৭৯ জনের মধ্যে পরীক্ষায় অংশ নেয় ১ লাখ ৯১ হাজার ৮২১ জন। এরমধ্যে পাশ করেছে ১ লাখ ৫৮ হাজার ৬৮৫ জন।

এক্ষেত্রে বোর্ডের পাশের হার ৮২ দশমিক ৭৩ শতাংশ। তবে শুধুমাত্র গণিতেই অকৃতকার্য হয়েছে ১৯ হাজার ২৯৬ জন পরীক্ষার্থী। ইংরেজি বিষয়ে অকৃতকার্য হয়েছে ৮ হাজার ৭৩৮ জন। শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক তোফাজ্জুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। তবে গত বছর এ শিক্ষা বোর্ডের পাশের হার ছিল ৮৪ দশমিক ১০ শতাংশ।

আরও পড়ুন- করোনা: দিনাজপুরে নতুন আক্রান্ত ২৪, সর্বমোট ৩০৫, সুস্থ ৮২

ছাত্রদের তুলনায় ছাত্রীদের পাশের হার বেশি। ছাত্রদের পাশের হার ৮১ দশমিক ২২ শতাংশ এবং ছাত্রীদের পাশের হার ৮৪ দশমিক ৩২ শতাংশ। এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২ হাজার ৮৬ জন। এর মধ্যে ৬ হাজার ৩২৬ জন ছাত্র ও ৫ হাজার ৭৬০ জন ছাত্রী। বিজ্ঞান বিভাগে ৮২ হাজার ১০০ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৭৭ হাজার ৫১২ জন। এর মধ্যে ৪৪ হাজার ১২২ জন ছাত্র এবং ৩৩ হাজার ৩৯০ জন ছাত্রী রয়েছে। পাশের হার ৯৪ দশমিক ৭৬ শতাংশ। মানবিক বিভাগে ১ লাখ ৬ হাজার ৩৪৩ জনের মধ্যে পাশ করেছে ৭৭ হাজার ৫৪৬ জন। এর মধ্যে ৩৩ হাজার ৫৯১ জন ছাত্র এবং ৪৩ হাজার ৯৫৫ জন ছাত্রী। পাশের হার ৭৩ দশমিক ৪৮ শতাংশ। ব্যবসা শিক্ষা বিভাগে ৪ হাজার ৫৩৬ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৩ হাজার ৬২৭ জন। এর মধ্যে ২ হাজার ৫৬৪ জন ছাত্র এবং ১ হাজার ৬৩ জন ছাত্রী। পাশের হার ৮০ দশমিক ৬২।

এ বছর জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২ হাজার ৮৬ জন। এরমধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১১ হাজার ৮৩২ জন। এদের মধ্যে ৬ হাজার ২৫৯ জন ছাত্র এবং ৫ হাজার ৫৭৩ জন ছাত্রী রয়েছে। মানবিক বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২২৬ জন। এরমধ্যে ৫৫ জন ছাত্রী এবং ১৭১ জন ছাত্র। ব্যবসা শিক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৮ জন। এরমধ্যে ১২ জন ছাত্র এবং ১৬ জন ছাত্রী রয়েছে।

শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, এ বছর অসাদুপায় অবলম্বনের জন্য ১০৫ জন পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার করা হয়। শিক্ষা বোর্ডের অধিনে ৮ টি জেলায় ২৭১ টি পরীক্ষা কেন্দ্রে ২ হাজার ৬৪৬ টি বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অংশ নেয়।

শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক তোফাজ্জুর রহমান বলেন, প্রকাশিত ফলাফল অনুযায়ী এ বছর শুধুমাত্র গণিত বিষয়েই ফেল করেছে ১৯ হাজার ২৯৬ জন পরীক্ষার্থী। একইভাবে ইংরেজি বিষয়ে ফেল করেছে ৮ হাজার ৭৩৮ জন।

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
২,৯৪৯
৩৭
২,৮৬২
১৩,৪৮৮
সর্বমোট
১৭৮,৪৪৩
২,২৭৫
৮৬,৪০৬
৯০৪,৫৮৪

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ