দখল নয়, কেনা জমির বাউন্ডারি সীমানা দিতে গিয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতির শিকার – এমপি মহিব


এমপি মহিব


নিজের ক্রয় করা জায়গার সীমানা নির্ধারণ করতে গিয়ে বিপাকে পড়লেন পটুয়াখালী-৪ আসনের নবনির্বাচিত এমপি মহিব্বুর রহমান মহিব। বিব্রতকর পরিস্থিতি এড়াতে এমপি মহিব এক কথায় জানালেন এ জমি তিনি ’৯৭ সালে কিনেছেন। এখন সীমানা বাউন্ডারি দিচ্ছেন। পাউবোর জমি দক্ষিণ দিকে পড়ে আছে। দলিল নম্বর পর্যন্ত দিয়েছেন। তিনি ষড়যন্ত্রের শিকার।

কুয়াকাটা পৌরসভার মেয়র বললেন একই কথা, পাউবোর জমি দখলের খবরটি সঠিক নয়। দীর্ঘ বছরের পর বছর এমপি সাহেবের জমি খালি পড়ে থাকায় কয়েকটি দোকান করেছিলেন তিন/চার ব্যবসায়ী। তারা দোকান সরিয়ে নেয়ার পরে তাঁর জমির চৌহদ্দি দিচ্ছেন এমপি সাহেব। সাংবাদিকদের কাছে দেয়া অভিযোগ এবং পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষের দেয়া বক্তব্য সঠিক নয়।

একটি জাতীয় দৈনিকে এমপি মহিব্বুর রহমানকে জড়িয়ে কুয়াকাটার জমি দখলের খবরটি প্রকাশ হলে বিব্রতকর পরিস্থিতির শিকার হন তিনি।

১১৬০ নম্বর এসএ খতিয়ানের ওই ৮০ শতক জমি তিনি কিনে রেখেছেন ’৯৭ সালে। তারিখ-০৯-১২-১৯৯৭। যার দলিল নম্বর-৩০৫০। দাগ নম্বর-৫৩৬৩,৫৩৮৪,৫৩৪৯,৫৩৫০,৫৪৮৪,৫৪৮৫,৫৪৮৬। মৌজা লতাচাপলী। এ জমির বিএস রেকর্ড পর্যন্ত তাঁর নামে করা হয়েছে। যার খতিয়ান নম্বর ১২৫৮। মৌজা কুয়াকাটা। দাগ নম্বর-২৬২৬,৩২৪৯,৩২৫০,৩২৫১,৩২৫৫,৩২৫৭,৩২৫৯ থেকে ৩২৬৫ পর্যন্ত। দেয়া হচ্ছে খাজনা। রয়েছে হাল দাখিলা। কুয়াকাটার মেয়র বলেন, একটি মহল সাংবাদিক বন্ধুদের কাছে যে অভিযোগ করেছেন তা সঠিক নয়।


Sogir hossen৭১বিডি২৪ডটকম/মো. ছগির হোসেন/কলাপাড়া(পটুয়াখালী)

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *