“তালতলী সন্ত্রাসীদের ভয়ে ৫ পরিবার বাড়ী ছাড়া আটক-১”


বরগুনার তালতলীতে প্রেমের টানে ২ সন্তানের জননী উধাও


বরগুনার তালতলীতে সন্ত্রাসীদের হামলা ও নির্যাতনের ভয়ে ৫ পরিবার ভিটাবাড়ী ছেড়ে থানায় এসে আশ্রায় নিয়েছে। মঙ্গলবার এ অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী পরিবারগুলো। পুলিশ দেশীয় অস্ত্রসহ মাদকসেবী নুর হোসেনকে তার বাড়ী থেকে আটক করেন।

জানা গেছে, উপজেলার নিশানবাড়ীয়া ইউনিয়নের তেতুলবাড়ীয়া গ্রামের মোতালেব প্যাদা ও নুর হোসেন গংরা নেশায় আসক্ত হয়ে পার্শ্ববর্তী আবু জাফর হাওলাদার, লোকমান হোসেন, জাহাঙ্গীর হোসেন, এনায়েত হোসেন ও আলম মাঝির পরিবারের উপর বিভিন্ন ভাবে পাশবিক নির্যাতন করে আসছে। তাদের নির্যাতন সইতে না পেরে ভুক্তভোগী ৫ পরিবার ও এলাকাবাসীসহ প্রায় শতাধিক লোক থানায় এসে এমন অভিযোগ দায়ের করেন।

ভুক্তভোগী আবু জাফর হাওলাদার জানান, সন্ত্রাসী নুর হোসেন মাদক সেবন করে মাতাল হয়ে দেশীয় অস্ত্র রামদা ও ছেনা নিয়ে আমাদের কাছে চাঁদা দাবী করেন। হামলা ও নির্যাতনের আশংকা থেকে রেহাই পাওয়ার আশায় সোমবার নুর হোসেনকে ১হাজার ৫শত টাকা দেই। টাকা কম দেওয়ায় ওইদিনই ভুক্তভোগী পরিবারের নারী ও শিশুদের ওপর লোহার পাইপ দিয়ে পাশবিক নির্যাতন চালায়। এ নির্যাতন সইতে না পেরে আশ্রায়ের জন্য থানায় আসি।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান দুলাল ফরাজী জানান, মোতালেব প্যাদা ও নুর হোসেন গংরা নেশাখোর, চাঁদাবাজ ও দস্যু প্রকৃতির লোক। ওরা স্থানীয় কোন বিচার ব্যবস্থার তোয়াক্কা করেনা।

তালতলী থানার ওসি পুলক চন্দ্র রায় জানান, ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর পক্ষ থেকে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ পাঠিয়ে অভিযুক্ত নুর হোসেনকে দেশীয় অস্ত্রসহ আটক করা হয়েছে। তদন্ত পুর্বক আইনগত ব্যবস্থানেয়া হবে।


৭১বিডি২৪ডটকম | কে.এম রিয়াজুল ইসলাম | বরগুনা সংবাদদাতা

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *