ডাবল সেঞ্চুরি করে মুশফিকের বিশ্ব রেকর্ড

:: ৭১বিডি২৪ডটকম :: স্পোর্টস ডেস্ক ::


ডাবল সেঞ্চুরি করে মুশফিকের বিশ্ব রেকর্ড


দেশের ইতিহাসের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি এসেছিল তার ব্যাট থেকে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২০১৩ সালের গল টেস্টে অভিজাত ক্রিকেটে ডাবল সেঞ্চুরিয়ান ক্লাবে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে প্রবেশ করেছিলেন মুশফিক। এরপর গত বছর ওয়েলিংটনে করেন ১৫৯ রান। এর মাঝে তার হয়ে সেভাবে ব্যাট আর কথা বলেনি। অবশেষে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ডাবল সেঞ্চুরির দেখা পেলেন মুশফিক। সিকান্দার রাজার ওভারে সিঙ্গেল নিয়ে ডাবল সেঞ্চুরি পূরণ করেছেন সাবেক অধিনায়ক।

উইকেটকিপার হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটেও ইতিহাস গড়ে ফেললেন এর মধ্য দিয়ে। প্রথম উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান হিসেবে দুটি ডাবল সেঞ্চুরির কীর্তি গড়েছেন মুশফিক। একই সঙ্গে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবেও দুটি ডাবল সেঞ্চুরির মালিক মুশফিকুর রহিম।

মুশফিকের রেকর্ডের পর ইনিংস ঘোষণা

মাহমুদউল্লাহ যেন অপেক্ষা করছিলেন মুশফিকুর রহিমের রেকর্ডের জন্য। টেস্টে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সাকিব আল হাসানের ২১৭ রান এই কিপার ব্যাটসম্যান ছাড়িয়ে যাওয়ার পরেই প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। ৭ উইকেটে ৫২২ রানে ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ। টেস্টে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এটাই তাদের সর্বোচ্চ। আগের সেরা ছিল ২০১৪ সালে চট্টগ্রামে করা ৫০৩। অধিনায়ক ডেকে নেওয়ার সময় মুশফিক ২১৯ ও মিরাজ ৬৮ রানে ব্যাট করছিলেন। অবিচ্ছিন্ন অষ্টম উইকেটে দুই জনে যোগ করেন ১৪৪ রান। দুই ব্যাটসম্যানই করেন নিজেদের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ। গল টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২০০ ছিল মুশফিকের আগের সেরা। মিরজের আগের সর্বোচ্চ ছিল ভারতের বিপক্ষে ৫১।

চূড়ায় মুশফিক

শন উইলিয়ামসকে রিভার্স সুইপে চার মেরে সাকিব আল হাসানকে স্পর্শ; পরের বলে সিঙ্গেলে গেলেন ছাড়িয়ে। টেস্টে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংসের রেকর্ড পুনরুদ্ধার করলেন মুশফিক। বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করেছিলেন মুশফিক, ২০১৩ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গলে। করেছিলেন ঠিক ২০০। ২০১৫ সালে তাকে ছাড়িয়ে তামিম ইকবাল করেন ২০৬। গত বছর নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে সাকিব করেন রেকর্ড গড়া ২১৭। এবার মুশফিক আবার নিজের করে নিলেন রেকর্ড। ইনিংস ঘোষণার সময় অপরাজিত ছিলেন ২১৯ রানে।

অষ্টম উইকেটে সেরা জুটি

মিরপুর টেস্টে দুটি উইকেটে নিজেদের সেরা জুটি পেল বাংলাদেশ। চতুর্থ উইকেটে মুমিনুল হককে নিয়ে দেশের সেরা জুটি গড়েছিলেন মুশফিকুর রহিম। মেহেদী হাসান মিরাজকে নিয়ে অষ্টম উইকেটে গড়লেন আরেকটি রেকর্ড জুটি। ২০১০ সালে চট্টগ্রামে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অষ্টম উইকেটে নাঈম ইসলামের সঙ্গে মুশফিকের ১১৩ রানের জুটি ছিল আগের সেরা। সেই রান ছাড়িয়ে আরও এগিয়ে যাচ্ছেন মুশফিক-মিরাজ। ১৫৮ ওভার  শেষে বাংলাদেশের স্কোর ৫০৪/৭। সে সময় জুটির রান ১২৬। মুশফিক ২০৯ ও মিরাজ ৬০ রানে ব্যাট করছেন।

মুশফিকের ইতিহাস গড়া ডাবল সেঞ্চুরি

বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্টে দুটি ডাবল সেঞ্চুরি করলেন মুশফিকুর রহিম। ১৯৯ রানে দাঁড়িয়ে লেগ স্পিনার ব্র্যান্ডন মাভুটার একটি ওভার মেডেন খেলেন মুশফিক। সিকান্দার রাজার পরের ওভারে স্ট্রাইক পেয়ে দ্রুত একটি সিঙ্গেল নিয়ে জায়গা করে নেন ইতিহাসের পাতায়। বিশ্বের প্রথম কিপার হিসেবে গড়েন দুটি ডাবল সেঞ্চুরির কীর্তি। ৪০৭ বলে ১৬ চার ও এক ছক্কায় ডাবল সেঞ্চুরিতে যান মুশফিক। এর আগে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গল টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে করেছিলেন ২০০ রান।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *