গৃহবধু হত্যার ঘটনায় যাবজ্জীবন কারাদন্ড

13

 

:: ৭১বিডি২৪ডটকম :: ব্যুরো প্রধান ::


যাবজ্জীবন কারাদন্ড 


:: বরিশাল :: বরিশালে অন্তঃস্বত্তা গৃহবধূকে হত্যার অপরাধে এক আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। পাশাপাশি ১০ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ বছরের সশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (০৬ নভেম্বর) জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মহসিনুল হক এ রায় ঘোষনা করেন। দন্ডিত নবকুমার সাহা খুলনা আইচগাতি গ্রামের সাহাপাড়ার বাসিন্দা চিত্ত সাহার ছেলে ও উজিরপুর জামবাড়ী গ্রামের বাসিন্দা।

আদালতসূত্র জানায়, দন্ডিত নবকুমারের শ্যালক মিলন মল্লিকের সাথে উজিরপুর কাউয়ারেখা গ্রামের সুভাষ হালদারের কন্যা কল্পনা রাণীর ২০১০ সালে বিয়ে হয়। মিলন দিনমজুরের কাজ করায় এবং আর্থিক অবস্থা খারাপ হওয়ায় নবকুমারের বাসায় থাকতো। ২০১০ সালের ৬ জুন কল্পনা তার বাবার বাড়ি এক অনুষ্ঠানে যায়। ওইদিন রাতে নবকুমার তাকে আনতে গেলে কল্পনা ৭ মাসের অন্তঃস্বত্বা থাকায় তার পরিবার দিতে অস্বীকৃতি জানায়। এরপরও নবকুমার তাকে জোরপূর্বক নিয়ে আসে এবং ৮ জুন কল্পনা বিষপানে আত্মহত্যা করেছে বলে জানায়।

এঘটনায় ২০১০ সালের ৯ জুন কল্পনার বাবা বাদি হয়ে নবকুমার সহ অজ্ঞাত ৩ জনকে অভিযুক্ত করে মামলা করে। ২০১৩ সালের ৩১ ডিসেম্বর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উজিরপুর থানার এসআই শামিম শেখ আদালতে চার্জশীট জমা দেয়।

এতে উল্লেখ করা হয়, নবকুমারের স্ত্রী খুলনা থাকে। মিলন দিন মজুরের কাজ করায় এবং বাসায় না থাকায় কল্পনা রাণীর সাথে নবকুমারের অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ২০১০ সালের ৭ জুন মিলন ও কল্পনার সাথে নবকুমারের পারিবারিক বিষয় নিয়ে বিরোধ হয়।

ওইদিন রাতে মিলন ঘুমিয়ে পড়লে কল্পনাকে ডেকে নেয় নবকুমার। এসময় শারীরিক সম্পর্ক করতে চাইলে অস্বীকার করায় তাকে মারধর করে। এতে অজ্ঞান হয়ে পড়লে জানাজানির ভয়ে কল্পনাকে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে প্রচার করে। মামলায় ২০ জনের মধ্যে ১৯ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে বিচারক ওই রায় দেন।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.

শিরোনাম