গলাচিপা বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে বিরুদ্ধে দূর্নীতির অভিযোগ, রুমে তালা

 

:: ৭১বিডি২৪ডটকম :: জসিম উদ্দিন ::


:: গলাচিপা(পটুয়াখালী) :: পটুয়াখালীর গলাচিপা পৌরসভার গলাচিপা বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. হালিম মিয়াকে বিভিন্ন দূর্নীতির অভিযোগে তাকে বের করে দিয়ে তার রুমে তালা দেয় সমস্ত সাধারন শিক্ষক ও চতুর্থ শ্রেনীর কর্মচারীরা।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১ টার সময় বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক মো. হারুন-অর-রশীদ  নেতৃত্বে সমস্ত শিক্ষকরা জানুয়ারী ২০১৮ থেকে নভেম্বর পর্যন্ত বকেয়া বেতন ও ভাতা চাইতে গেলে এই ঘটনা ঘটে।

এ সময় সমস্ত শিক্ষকদের পক্ষে বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক মো.হারুন-অর-রশীদ বলেন, প্রধান শিক্ষক বিভিন্ন দূর্নীতির আশ্রয় নিয়ে ১২ বছরে ২ কোটি টাকার বেশী আত্মসাৎ করেছেন। রেজিঃ ফরম বাবদ ছাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায় করেন। গাইড বানিজ্য করে লক্ষ লক্ষ টাকা কমিশন গ্রহন করেন। দীর্ঘ ১১ মাস যাবত স্কুল রুল অনুযায়ী শিক্ষক-কর্মচারীদেরকে কোন কোন বেতন-ভাতা বিদ্যালয় থেকে প্রদান করেন নাই। বিদ্যালয়ে কোন অডিট কমিটি নেই, কোন অডিট সম্পন্ন করেন নাই। শিক্ষক ও কর্রচারীদের সাথে বাড়ীর চাকরের মত অশোভনীয় আচরন করেন। তার স্বেচ্ছাচারিতার কারনে বিদ্যালয়ের বর্তমানে কোন ম্যানেজিং কমিটি নেই। আমাদের মিথ্যা মামলা, মানহানি ও জীবন হানীর হুমকি দিয়েছে। আমরা চাই এই বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করার পর থেকে সমস্ত হিসাব-নিকাশ অডিট এর মাধ্যমে পর্যবেক্ষন করা হোক। তাহলেই সমস্ত কিছু পরিষ্কার হয়ে যাবে। এত দূর্নীতি থাকা সত্তেও সে কিভাবে গলাচিপা শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হয় এটা আামাদের বোধগম্য নয়। এ ছারা শিক্ষক নিয়োগে বহু টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. হালিম মিয়া বলেন, আমি বিদ্যালয়ে সিসি ক্যামেরা বসিয়েছি সে জন্য তারা তার বিরোধীতা করে আসছে। আমার বিরুদ্ধে যে সব অভিযোগ করেছে তা সম্পূর্ন মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। আমি কোন দূর্নীতি করিনি।

এ সময় আরও উপস্হিত ছিলেন, বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক শবনম বেগম, আঃ রশিদ মিয়া, মো.মারুফ হোসেন, মো.মিজানুর রহমান, মো.ছেফাতুল্লাহ, সহকারী শিক্ষক রাবেয়া জাহান, তন্বি ঘোষ, সালমা সুলতানা, সাধনা রানী বনিক, সুশান্ত চন্দ্র ভূইয়া, বরুন রায়, ল্যাব এসিষ্টান্ট আয়েশা বেগম, নৈশ প্রহরী আব্দুল হালিম সহ বিভিন্ন গনমাধ্যমের সংবাদ কর্মীরা উপস্হিত ছিলেন।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *