গলাচিপা কালের সাক্ষী গুরিন্দা মসজিদ হারিয়ে যাচ্ছে প্রাচীন ঐতিহ্য!

৭১বিডি২৪ডটকম | মু. জিল্লুর রহমান জুয়েল:


গলাচিপা কালের সাক্ষী গুরিন্দা মসজিদ হারিয়ে যাচ্ছে প্রাচীন ঐতিহ্য!


মুসলিম ঐতিহ্যের প্রাচীন ও অন্যতম নিদর্শন এক গম্বুজ বিশিষ্ট গুরিন্দা জামে মসজিদ। এটি পটুয়াখালী জেলার গলাচিপা উপজেলার রতনদী তালতলী ইউনিয়নে উলানিয়া সড়কের পূর্ব পাশে অবস্থিত। কিন্তু প্রয়াজনীয় সংস্কার বা রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে ধ্বংসের পথে প্রাচীন কালের স্বাক্ষী মসজিদটি।

স্থানীয়দের তথ্য অনুযায়ী বহু শতাব্দী পূর্বে এক প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাস এর অনেক আগেই গুরিন্দা জামে মসজিদ নির্মাণ করা হয়েছে। আবার অনেকে জানান, এ অঞ্চলে মুসলমানদের আগমন ঘটে আনুমানিক ১৪৬৫ খ্রিস্টাব্দে সুলতান মোবারক শাহের চন্দ্রদ্বীপ বিজয়ের আগে, তখন হয়তো নির্মান করা হয়।

মসজিটির মূল ভবনটি প্রায় ৩৬০ বর্গফুট ক্ষেত্রফলবিশিষ্ট বর্গাকৃতির। এর উচ্চতা প্রায় ১৬ ফুট। এটি একটি একতলা মসজিদ। একটি মাত্র গম্বুজ বলে এক গম্বুজ মসজিদই বলে থাকে। মসজিদটি ভূমি থেকে কে প্রায় চার ফুট উঁচু তে নির্মাণ করা হয়েছে।

মসজিদটির দক্ষিণে অদূরে রয়েছে একটি বৈঠকখানা। কিন্তু প্রয়োজনীয় সংস্কারের অভাবে দিন দিন ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। তাই খুব দ্রুত মসজিদের সংস্কার করা না হলে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে প্রাচীন কালের স্বাক্ষী মসজিদটি।

এ বিষয়ে রতনদী তালতলী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ গোলাম মোস্তফা খান বলেন, এই মসজিদটি অনেক পুরনো এবং জমিদারদের করা খুব দ্রুত সংস্কার করা হলে মসজিদটি আবার জীবন ফিরে পাবে।

এ বিষয়ে প্রত্নত্ব অধিদপ্তরের প্রত্নতাত্তিক ফিল্ড অফিসার মোঃ খায়রুল বাসার মুঠোফোনে বলেন, আমার দেশের শতবছর বা হাজার বছরের স্থাপনা গুলো  ‍গুরুত্ব সহকারে প্রাচীণ ঐতিহ্য ধরে রাখার চেষ্টা করি, বিষয়টি আমাদের খুলনা ও বরিশাল বিভাগের প্রত্নত্বের রিজয়োনের আঞ্চলীক কার্যালয়ের উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা হবে।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *