গলাচিপায় সংখ্যালঘুর বাড়ী হামলা ও ভয়ভীতি দেখানোর মামলায় দুই জন গ্রেপ্তার।

৭১বিডি২৪ডটকম | করেসপন্ডেন্ট:


গলাচিপা


গলাচিপা(পটুয়াখালী): সংখ্যালঘুর বাড়ী হামলা, ভয়ভীতি দেখানো, নন জি আর মামালা ও গ্রেপ্তারী পরওয়ানার আসামী ইলিয়াস মৃধা(৪০) ও সবুজ হাওলাদারকে আটক করেছে গলাচিপা থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক ৮দিকে গলাচিপা পৌরসভার খেয়াঘাট সংলগ্ন আড়ৎপট্টি এলাকায় থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। তাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। শুক্রবার গলাচিপা থানা পুলিশ তাদেরকে আদালতে প্রেরণ করেন।

একাধিক মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পূর্ব গোলখালী গ্রামের ধীরেন চন্দ্র হাওলাদারের বাড়ী ব্যাপক হামলা ও ভাংচুর, লুটপাট ও মহিলাসহ কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় মামলা হয়। মামলা নং জিআর ৩৬৩/৮, আসামীদের বিরুদ্ধে গলাচিপা আদালতে মামলাটি চলমান। গত ২০১৬সালের ১৭ নভেম্বর মামলাটির সাক্ষীর দিন ধার্য থাকায় বাদী আদালতে সাক্ষী শেষে বাড়ী ফেরার পথে পৌরসভার টিএন্ডটি রোডের আশা ব্যাংকের সামনে বসে আসামীরা বাদী ধীরেন চন্দ্র হাওলাদারকে মামলা তুলে নেয়ার হুমকি দেয়। মামলা তুলে না নিলে প্রাণে মেরে ফেলবে বলে আশা ব্যাংকে আশ্রয় নেয়। পরে থানা পুলিশ বাদীকে উদ্ধার করে। বাদী গলাচিপা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করে। জিডি নং৬০৬ তারিখ: ১৭.১১.১৬ইং। থানা পুলিশ ঘটনার সত্যতা পেয়ে গলাচিপা আদালতে আসামীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দেয়। আদালত অনুমতি দিলে তদন্ত সাপেক্ষে বিবাদীদের বিরুদ্ধে পেনাল কোডের ৫০৬(২)ধারার অপরাধ প্রমানিত হয়। আদালত তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরওয়ানা দেয়। আসামী ইলিয়াস মৃধা(৪০) ও সবুজ হাওলাদার সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের কারনে তাদের বিরুদ্ধে একাধিক পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে। তারা এক সময় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলে থাকলেও বর্তমানে ইলিয়াস মৃধা গোলখালী ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ও সবুজ হাওলাদার ৪নং ওয়ার্ডের সভাপতি। তারা নব্য আওয়ামীলীগ করে জনসাধারণকে ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছে বলে বাদী অভিযোগ তোলেন।

গলাচিপা থানা উপ সহকারী পুলিশ পরিদর্শক মো: জাকির হোসেন জানান, তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরওয়ানা ছিল।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *