গলাচিপায় ঘূর্ণিঝড় ফণি মোকাবেলায় ১০৫টি সাইক্লোন শেল্টার প্রস্তুত


গলাচিপায় ঘূর্ণিঝড় ফণি মোকাবেলায় ১০৫টি সাইক্লোন শেল্টার প্রস্তুত


গলাচিপায় আশ্রায়ন কেন্দ্রে যেতে সাধারণ মানুষের অনীহা রযেছে। ঘূর্ণি ঝড় ফণীর প্রভাবে ৭নম্বর বিপদ সংকেত প্রচার হলেও সাধারণ মানুষ তা নিয়ে অতোটা মাথা খাটাচ্ছে না। প্রশাসন চেষ্টা করেও এখন পর্যন্ত সাইক্লোন শেল্টারে নিতে পারেনি সাধারণ মানুষকে। এর পরেও অব্যাহত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে প্রশাসন।

গলাচিপা পৌর এলাকার রিং বেড়িবাঁধের বাইরে বসতী জরিনা বেগম (৪৬) বলেন, ‘রাইন্দা খাওয়া লাগে। পোলাপান লইয়া এহন যামু কই। বইন্যা আইলে ঘেন সময় যামু। আগে যাইয়া লাভ নাই।’

এদিকে ঘূর্ণিঝড় ফণির পূর্ভাবাসের খবর পেয়ে উপকূলীয় গলাচিপা উপজেলায় বিভিন্ন সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে উপজেলা প্রশাসন। ইতিমধ্যে উপজেলার ১০৫টি সাইক্লোন শেল্টার এবং সাতটি মাটির কিল্লা প্রস্তুত রাখা হয়েছে। আগাম প্রস্তুতি হিসেবে উপজেলা প্রশাসন বৃহস্পতিবার দুপুরে এক জরুরী সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মো. রফিকুল ইসলাম জানান, দুর্যোগ চলাকালীন সময় মানুষের জীবন রক্ষা প্রধান কাজ তাই আগে থেকেই সকলে যেন গবাদি পশু মাটির কিল্লায় নিয়ে আসে তার ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। সার্বক্ষণিকভাবে খোলা রাখা হযেছে কন্ট্রোল রুপ। তিনি আরো জানান, ইতিমধ্যে উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের জন্য ১২টি মেডিকেল টিম ও ভ্রাম্যমান পাঁচটি মেডিকেল টিম প্রস্তুত রয়েছে। এ ছাড়া বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির ২০২৫জন স্বেচ্ছাসেবক প্রস্তুত রয়েছে।

এদিকে ঘুর্ণিঝড় ফনীর প্রভাবে গলাচিপায় থেমে থেমে বৃষ্টি ও ঝড়ো বাতাস বইছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এলাকার কোন সাইক্লোন শেল্টারে কেউ আশ্রয় নিতে যায়নি।


৭১বিডি২৪ডটকম | সাইমুন এলিট | গলাচিপা (পটুয়াখালী)

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *