গলাচিপার সন্তান “সোয়েব সাদিক সজীব”

৭১বিডি২৪ডটকম ।  স্টাফ রিপোর্টার:


SOHEB


সৌরভ রক্ষিত: সম্প্রতি ছোট পর্দায় যাদের মুখ দেখা যায় তাদের মধ্যে অন্যতম সোয়েব সাদিক সজীব। অভিনয় করেন । পরিচালনায়ও রয়েছে তার দক্ষ হাত। অসংখ্য নাটকে অভিনয় করার পাশিপাশি ইতোমধ্যে তৈরী করেছেন বেশ কিছু নাটক। দর্শক নন্দিত হয়েছে যার সবগুলিই। নাটক বানালেও অভিনয় থেমে নেই সোয়েব সাদিকের। পরিচালনার সঙ্গে সঙ্গে চলছে অভিনয়। তবে নিজের নাটকে তাকে খুব একটা দেখা যায় না। ইতোমধ্যে কাজের স্বীকৃতিস্বরুপ সময়ের কথা ম্যাগাজিন থেকে পেয়েছেন গুনিজন সম্মাননা২০১৬।তাছারা দু-দুইবার বিটিভির ঈদের সেরা নাটকের তালিকেয় ছিল তার নাম । নন্দিত এই নবীন নাট্য ব্যাক্তিত্বর সঙ্গে কথা হয় । পাঠকদের জন্য তার কিছু অংশ প্রকাশ করা হলো।
প্রশ্ন : কেমন আছেন ?
সোয়েব : চলে যাচ্ছে ভাই। দিন আসে দিন যায়।
প্রশ্ন : অভিনয়ের কী খবর, বর্তমানে কোন দিকে সময় দিচ্ছেন পরিচালনা না অভিনয় ?
সোয়েব : ঈদের প্লানিং চলছে। সে জন্য বর্তমানে অভিনয় একটু কমিয়ে দিয়েছি। ঈদের নাটকগুলো দেখতে পাবেন আশা করি। প্লানিং নিয়ে চাপের মধ্যে আছি। কঠিন কাজ।
প্রশ্ন : ঈদে কোন দিকে বেশি গুরুত্ব দেবেন নাটক নির্মাণ নাকি অভিনয় ?
সোয়েব : বেশ কিছু নাটক নির্মাণ করবো। ইতোমধ্যে দুটি নাটক ফাইনাল হয়েছে। আরো কিছু লেখা হাতে রয়েছে। কয়েকজন নাট্যকারের সঙ্গে নতুন নাটক নিয়ে কথাও হচ্ছে। এখান থেকে কিছু ভালো লেখা নিয়ে কাজ করব। আর কয়েকটি নাটকে আমাকে দেখা যাবে। তবে সেগুলির পরিচালক আমি নয়।
প্রশ্ন : এবার একটু অন্য প্রসঙ্গে আসি। মিডিয়াতে আসার শুরুটা কীভাবে হলো ?
সোয়েব : খুব ছোট বেলা থেকেই অভিনয়ের প্রতি ঝোক ছিলো। এক সময় কবিতা আবৃত্তি করতাম। তারপর ধীরে ধীরে থিয়েটারের সঙ্গে যুক্ত হই। এর পর চলে আসি নাটকে ? সেই থেকে চলছে।
প্রশ্ন : ক্যামেরার সামনে প্রথম কবে দাঁড়ালেন মনে পড়ে ?
সোয়েব : সন তারিখ মনে নেই। তবে নাটকের নাম মনে আছে। ‘এক কোটি পনের লাখ ষাট টাকা’ নামক নাটকে প্রথম ক্যামেরার সামনে দাঁড়াই। নাটকটি পরিচালনা করেছিলেন সকাল আহমেদ। কীভাবে কি হলো জানি না। তবে ভয় পাইনি। সেটি ছিলো এক ঘন্টার নাটক।
প্রশ্ন : ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় শুরু কবে থেকে ?
সোয়েব : আমার প্রথম অভিনিত ধারাবাহিক নাটক শেয়ারবাজার ডটকম। এই নাটকে আমার চরিত্রের নাম মিন্টু। নাটকটিতে অপূর্ব, হিল্লোল, দিপা খন্দকার, জেনি, হুমায়রা হিমু, ফারুখ আহমেদসহ অনেক বড় বড় অভিনেতা অভিনেত্রীর সঙ্গে কাজ করার সুযোগ পাই। এই চরিত্র আমাকে পরিচিতি এনে দেয়। তারপর আরো অনেক ধারবাহিকে অভিনয় করেছি।
প্রশ্ন : অনেক নাটক তো করলেন। এর মধ্যে থেকে কিছু উল্লেখযোগ্য নাটকের নাম জানতে চাইলে কোন নামগুলো বলবেন ?
সোয়েব : ঝামেলায় ফেলে দিলেন। এভাবে বলা মুশকিল। তকে কিছু নাটকের কথা ভুলতে পারি না। এগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে থানার নাম শনির আখড়া, অদৃশ্য শত্রু, শেয়ারবাজার ডটকম. ছবির হাট, জলডাঙ্গা, হবু বউ, ঠাসকি, প্রেম বাইক ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।
প্রশ্ন: আপনার পরিচালিত কিছু নাটকের নাম জানতে চাই ?
সোয়েব : বেশ কিছু নাটক পরিচালনা করার চেষ্টা করেছি। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে আঁধারের গল্প, বিষ পিপড়া, বাসন্তি টি স্টল, না বলা গল্প ইত্যাদি।
প্রশ্ন : অভিনয় এবং পরিচালনা , দুটার ভিতর থেকে যদি একটা বেছেনিতে বলে ?
সোয়েব : প্রথমত আমি থিয়েটার কর্মী , তাই ভালো একজন নাট্য কর্মী হবার জন্য যেই খানে সুযোগ পাবো নিজেকে তুলে ধরার চেষ্টা করবো ।
প্রশ্ন : ভবিষ্যত পরিকল্পনা কী, বড় পর্দায় আসবেন তো ?
সোয়েব : বড় পর্দার লোভ কার না আছে। সুযোগ পেলে ভালো কাজ অবশ্যই করবো।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *