গলাচিপায় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ কেটে বালু উত্তোলন


গলাচিপায় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ কেটে বালু উত্তোলন


পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলায় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ কর্তন করে গর্ত করে বালু উত্তোলন করেছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, গলাচিপা উপজেলার অন্তর্গত চর বিশ্বাস ইউনিয়নের, দক্ষিন চর বিশ্বাস সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রয়েছে প্রায় ২৫০ জন শিক্ষার্থী। এখানে আছে বিদ্যালয়ের সামনে অবস্হিত একটি মাত্র খেলার মাঠ। স্হানীয় প্রভাবশালী মহলের মো.শাহজাহান মুন্সী নামে এক ব্যাক্তি কতৃক বিদ্যালয়ের খেলার মাঠ কেটে গর্ত করে বালু নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উক্ত মাঠটি খনন করার ফলে শিক্ষার্থীরা বঞ্চিত হচ্ছে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার অনুশীলন সহ শারিরীক শিক্ষা ও খেলাধুলা থেকে। শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয় সংলগ্ন বাড়িতে গিয়ে খেলাধূলা করতে চাইলে বাড়ির মুরুব্বীরা তাদের তাড়িয়ে দেয়। তখন তারা ভারাক্রান্ত মনে বিদ্যালয়ে ফিরে আসে।

এ প্রসঙ্গে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা বলেন, আমাদের বিদ্যালয়ের সামনে একটি মাত্র খেলার মাঠ। উক্ত মাঠ কর্তন করে গর্ত করে রাখায় আমরা বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহনের জন্য নিজেদের প্রস্তুতীর জন্য কোন মাঠ নেই। যা আছে তাতে খেলাধুলা করতে গেলে গর্তে পরে আমাদের বিভিন্ন অঙ্গ প্রত্যঙ্গের ব্যাপক ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। বিদ্যালয়ের নিজস্ব যেটুকু মাঠ আছে, তার মধ্যে নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভবনের নির্মান কাজের মালামাল রাখা আছে। অবশিষ্ট যা রয়েছে তা মুন্সি বাড়ির দখলে। বাকি অংশ শাহজাহান মুন্সি ও তার ভাইয়েরা প্রায়ই মাঠ থেকে বস্তাভরে বালু নিয়ে বড় বড় গর্তে পরিণত করেছে। তাই আমরাসহ বিদ্যালয়ের সকল শিশু খেলাধূলা থেকে বঞ্চিত। মাঠ খননের বিষয়ে বিদ্যালয়ের সভাপতি, মো. নুরুল ইসলাম মুন্সীর কাছে জানতে চাইলে, তিনি প্রতিবেদককে বিভিন্ন ভাষায় আপমান ও হুমকি দেন।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কাছে জানার জন্য গেলে তিনি বিদ্যালয়ের কাজে গলাচিপা এসেছেন, তাকে না পেয়ে সহকারী শিক্ষক আবু তাহের গাজীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, শাজাহান মুন্সীকে মানা করা সত্ত্বেও মাটি খনন করছে।

তিনি আরও বলেন, এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা ও শিক্ষা কর্মকর্তাকে অবহিত করা হবে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক অভিভাবক বলেন, সবাই দ্যাহে কিন্তু বলার কেহ নাই। যারা মাঠ থেকে বালু নেয় তারা এলাকার প্রভাবশালী। মান সম্মানের ভয়ে কেহই কথা বলেনা।

এলাকা বাসীর বক্তব্য হল, বর্তমান বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে শিশুদের শারিরীক ও মানুষিক বিকাশে ব্যাপক পদক্ষেপ গ্রহন করেছে। দক্ষিণ চর বিশ্বাস সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠটি দখল কারীদের হাত থেকে মুক্ত হয়ে কোমলমতি শিশুরা যেন প্রতিনিয়ত উক্ত খেলার মাঠে খেলা ধুলা করতে পারে এর সুষ্ঠ সুন্দর পরিবেশ সৃষ্টি হয় এ জন্য স্ব- স্ব কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা করছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো.মিজানুুর রহমান বলেন, উক্ত বিষয়টি অতি দ্রুত তদন্ত পূর্বক ব্যাবস্হা গ্রহন করা হবে। তিনি আরও বলেন, এর সাথে জড়িত কাউকে ছাড় দেয়া হবেনা।


Jasim Uddin৭১বিডি২৪ডটকম/জসিম উদ্দিন/গলাচিপা সংবাদদাতা

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *