June 22, 2024, 10:34 am
শিরোনাম :
পাথরঘাটায় কনিষ্ঠ উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন এনামুল হোসেইন “পুরাতন নয়, চাই নতুন নেতৃত্ব ! এনামুল আমাদের আশা- আকাঙ্ক্ষার প্রতীক”  গলাচিপায় সিপিপি স্বেচ্ছাসেবকদের দিনব্যাপী দক্ষতা উন্নয়ন কর্মশালা অনুষ্ঠিত গলাচিপায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ে দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ পাথরঘাটায় উপজেলা নির্বাচনে এমপি কন্যার ক্ষমতা অপব্যবহারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন গলাচিপায় টমটম উল্টে জিহাদ নামের কিশোরের মৃত্যু, আহত ২ পাথরঘাটায় চেয়ারম্যান প্রার্থী এনামুলের ওপর অতর্কিত হামলা ঘূর্ণিঝড় রেমালে গলাচিপায় প্রায় ১৫০ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি রাঙ্গাবালীতে মোটরসাইকেল প্রতীকের নির্বাচনী পথসভা গলাচিপায় উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে ওয়ানা মার্জিয়া নিতুর বিজয়

একাত্তরের তিন শহীদ হত্যাকারীর বিচার দাবিতে ঝালকাঠিতে সংবাদ সম্মেলন

আমির হোসেন, ঝালকাঠি প্রতিনিধি
সংবাদ সম্মেলন

ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় এক মুক্তিযোদ্ধার পৈত্রিক সম্পত্তি উদ্ধার একাত্তরের তিন শহীদদের হত্যাকারীর বিচারে দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে সংবাদ সম্মেলন করছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ গিয়াসউদ্দিন বাচ্চু সিকদার।

আজ ২৬ এপ্রিল মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সভাকক্ষেএ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা অংশ নেন।

আরও পড়ুন- ঝালকাঠিতে ১৮৪ পরিবার পেল স্বপনের ঘর

সংবাদ সম্মেলনেলিখিত বক্তব্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা গিয়াস উদ্দিন বাচ্চু জানান, কাঠালিয়া সদরে তার পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত ২৩২ নং খতিয়ানের ১৮৬২, ১৮৬৩ নং দাগের ৩.৬৬ শতাংশ জমি বিগত ৫০ বছর ধরে একই উপজেলার আনইলবুনিয়া গ্রামের আঃ রাজ্জাক মৃধা ওরফে শাজাহান মৌলভী জাল দলিল তৈরি করে জবর দখল করে আসছেন। ১৯৭১ সনে আঃ রাজ্জাক মৃধা, শ্রী কেশব চন্দ্র বল, শ্রী নারায়ন চন্দ্র ও শ্রী উপেন চন্দ্রকে হত্যার পিছনে হাত রয়েছে এবং মদদ দাতা হিসেবে কাজ করেছেন। দীর্ঘ দিনেও এই তিন শহীদদের হত্যাকারীর বিচার না হওয়ায় তিনি তাদের বিচারের দাবি এবং জমি উদ্ধারের জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছেন। একই সাথে তিনি আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর দৃষ্টি আকর্ষন করছেন। বীর মুক্তিযোদ্ধা গিয়াস উদ্দিন বাচ্চু সিকদার কাঠালিয়া উপজেলা সদরের পনু সিকদারের পুত্র।

গিয়াস উদ্দীন সিকদার আরো জানান, ডিসেম্বর ২০২১ সনে জমাজমির বিষয়টি নিয়ে স্থানিয় ইউনিয়ন পরিষদের শালিশ মিমাংশার জন্য বৈঠক হলে বিজ্ঞবিচারকদের সিদ্ধান্ত আমি মেনে নিলেও আব্দুল রাজ্জাক মৃধার ভাগিনি ইউপি সদস্য সাবিনা ইয়াসমিনের অসৎহস্তক্ষেপে উক্ত মিমাংশা বেস্তে যায়। এরপর থেকে এ পক্ষটি মামলা দিয়ে আমাকে বিভিন্ন ভাবে হয়রানী করে আসছে। বিভিন্ন সময় কূ-রুচিপূর্ণ মন্তব্য করে আমার মান সম্মান ক্ষুন্ন করে আসছে। আমি এ হয়রানী থেকে পরিত্রান পাওয়ার জন্য আইনমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী ও ভূমিমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন করছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা