আসামী ছেড়ে দেয়ার অভিযোগে ওসির বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি

৭১বিডি২৪ডটকম ॥ করেসপন্ডেন্ট;


অভিযোগ


বরিশাল : বরিশালের গৌরনদীতে কলেজ ছাত্র সাকির গোমস্তা(১৮)কে হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার এজাহারভূক্ত আসামীকে গ্রেফতার করে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় এরই মধ্যে পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। যে কমিটিকে আগামি পাঁচ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। রোববার সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করে বরিশাল জেলার পুলিশ সুপার মো. সাইফুল ইসলাম (পিপিএম) জানান, বরিশালের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মফিজুল ইসলামকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিস্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। যে কমিটির প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। নিহতের মা আলেয়া বেগম জানান, কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) তপন কুমার রায়কে লাঞ্চিত করার প্রতিবাদ করে তার ছেলে পালরদী মডেল স্কুল এ্যান্ড কলেজের একাদশ শ্রেনির ছাত্র সাকির। এর জের ধরে মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) বখাটে সোহেল গোমস্তা, ইমরান মীর, সুমন হাওলাদার, রিয়াজ খান, ফাহিমসহ ৫/৬ জন মিলে সাকিরকে পিটিয়ে জখম করে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার ভোররাতে সাকির মারা যায়। তবে সাকিরের ওপর হামলার ঘটনার পরপরই তিনি (সাকিরের মা) গৌরনদী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যা সাকিরের মৃত্যুর পর হত্যা মামলায় রুপ নেয়। এদিকে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী মামলার এজাহার ভূক্ত আসামি ফাহিমকে মারধর করে গৌরনদী থানার উপ-সহকারী পরিদর্শক(এসআই) মো. শামছুউদ্দিনের কাছে সোপর্দ করেন। কিন্তু পরে তাকে ওসির নির্দেশে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ ওঠে। তবে অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে গৌরনদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, ফাহিমকে ছেড়ে দেয়া হয়নি, সে থানা থেকে পালিয়ে গেছে। আসামি পালানোর পরে কেউ লিখিত অভিযোগ নিয়ে থানায় আসেননি। তাছাড়া ফাহিম ওই বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ছাত্র তার পড়নে স্কুলের ইউনিফরম থাকায় তাকে হাজতে রাখা হয়নি। যে কারণে সে পালানোর সুযোগ পেয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের জোর চেষ্টা চলছে । অপরদিকে রোববার কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. মনির হোসেন মিয়ার সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *