আদালতে হাজিরা দিয়ে ফেরার পথে তুলে নিয়ে ১জনকে লোহার রড দিয়ে পেটালো সন্ত্রাসীরা

(৭১বিডি২৪) পটুয়াখালী:

পটুয়াখালী আদালতে মামলায় হাজিরা দিয়ে বাড়িতে ফেরার পথে সন্ত্রাসীরা গতিরোধ করে নিয়ে পরিত্যাক্ত ঘরে আটকে বেঁধে রেখে জাহাঙ্গীর নামে একজনকে লোহার রড দিয়ে বেধরক মারধর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার স্বীকার মোশারফ হোসেন জাহাঙ্গীর জানান, গত ১৮.০৪.২০১৬ ইং তারিখ রোজ সোমবার জিআর ২/১৪ একটি মামলায় পটুয়াখালী জজ আদালতে হাজিরা দিয়ে বাড়িতে ফেরার পথে শহরের কলাতলা এলাকায় তিনটি মটর সাইকেল যোগে ৮/১০জনের একটি গ্রুপ এসে তার রিক্সার গতিরোধ করে র‌্যাব পরিচয় দিয়ে তাকে গাড়ীতে তুলে নেয়। কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই ব্যাবহিত মোবাই ফোন, সাথে থাকা একটি ব্যাগ নিয়ে যায় তারা। এরপরে মটর সাইকেলে উঠিয়ে ডাক চিৎকার করিলে মেরে ফেলার হুমকী প্রদান করে। একপর্যায়ে তাকে নিয়ে একটি পরিত্যাক্ত ঘরে বেঁধে লোহার রট দিয়ে শরীরের বিভিনś স্থানে বেধরক মারধর করা হয়। তবে এঘটনার সাথে জরিত সন্ত্রাসীদের মধ্যে একজনে মারধরের সময় মোবাইল ফোনে কল দিয়ে তার ডাকচিৎকার ও মারধরের শব্দ শুনিয়েছেন কোন একজনকে এমনটি তিনি ধারনা করতে পেরেছেন। তিনি আরো জানান, সন্ত্রাসীরা তার সাথে থাকা একটি মোবাইল ফোন বিভিনś সুত্রমতে ঘটনা সম্পর্কে জানাগেছে, বহাল গাছিয়াস্থ মাছ ব্যাবসায়ী সানু হাওলাদার ও কালাম তালুকদারের বাড়ির পিছনে রাস্থার পাশে একটি পরিত্যাক্ত দ্বোতাল টিনের ঘরে একজনকে মারধর করার ঘটনা ঘটেছে। তবে যাকে মারধর করা হয়েছে তার পরিচয় জানতে পারেনি এলাকাবাসী। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দির্ঘদিন ধরে পরিত্যাক্ত ঐ টিনের ঘরে বহিরাগতদের আড্ডা বসে। তবে মারধর করার ঘটনা এই প্রথম ঘটেছে। তারা জানান, ডাক চিৎকার শুনে ঐ ঘরের পাশাপাশি অবস্থান করলেও ভয়ে এগিয়ে যায়নি তারা। ঘটনার কিছুক্ষন পরপরেই একটি খালি অটোবাইক এসে ঐ ঘরের পাশে অবস্থন করে। এরপরে অচেতন অবস্থায় এক ব্যক্তিকে অটোবাইকে তুলে হেতালিয়া বাঁধঘাট পৌছে দিতে বলা হয়েছে শুনেছেন। জানাগেছে, গুরুত্বর আহত মোশারফ হোসেন জাহাঙ্গীর বর্তমানে গলাচিপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীণ রয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন মামলা দায়ের করা হয়নি, তবে পরিবার সুত্রে জানাগেছে, জাহাঙ্গীর গুরুত্বর অসুস্থ থাকায় মামলা দায়েরে বিলম্বিত হচ্ছে। তবে ঘটনার পরের দিন দুপুর ২টার দিকে পটুয়াখালী সদর থানায় প্রাথমিক ভাবে মৌখিক অভিযোগ করা হয়েছে।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *