আতংকে দিন কাটাচ্ছেন বাউফল এর ব্যবসায়ি ইউসুফ

মোঃনজরুল ইসলাম,পটুয়াখালী:

পটুয়াখালী জেলার বাউফল পৌরসভাধীন ০২নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মৃত মহব্বত হাওলাদার এর ছেলে সাবেক জাতীয় এ্যাতলেট ও ব্যবসায়ি মোঃ ইউসুফ আতংকে দিন কাটাচ্ছেন। একদিকে স্থানীয় কুচক্রীদের হুমকী ধামকী অন্যদিকে থানা পুলিশের রহস্যজনক আচারনে দিশেহারা তিনি। ঘটনার বিবরনে জানা যায় গত ০৯/১২/২০১৫ইং তারিখ বেলা ১১.৩০ মিনিট এর দিকে মোঃ ইউসুফ নিজ মোটর সাইকেল যোগে কালিশুরি হতে বাইফল বাজারে নিজ দোকানে আসছিলেন পথে একটি বাঁশ বোঝাই টমটম থেকে হঠাৎ দড়ি খুলে বাঁশ রাস্তার উপরে পরে ফলে ইউসুফ আহত হন এবং তার মটর সাইকেলটি ক্ষতিগ্রাস্থ হয়। এমতাবস্থায় বাঁশের মালিক ইউসুফের প্রতিবেশি হানিফের সংঙ্গে কথা কাটা কাটি হয়। একপর্যায়ে ইউসুফ উত্তেজিত হয়ে হানিফের গালে একটি চড় মারে। পরক্ষনে ভুল বুঝতে পেরে ক্ষমা চেয়ে নেয়।
কিন্তু বিধি বাম ঘটনাটিকে পুজি করে চলে নোংরা খেলা হানিফকে ভর্তি করা হয় বাউফল উপজেলা স্বাস্থ কম্পেলেক্সে ঐ দিনই ইউসুফকে আসামী করে থানা মামলা করা হয়। মামলা নং ৯ তাং ১১/১২/২০১৫ইং এর দুদিন পর ইউসুফের বড় ভাই ফোরকান বাদী হয়ে হানিফসহ পুরো পরিবারের অন্যান্যদের নামে মামলা করে। মামলা নং ১২ তাং ১৩/১২/২০১৫ইং এর পর ইউসুফের উপরে শুরু হয় বিভিন্ন মহলের চাপ। থানা পুলিশ ইউসুফকে গ্রেফতার করে হাজতে পাঠায়। পরে জামিনে তিনি মুক্ত হন। দুটি মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বাউফল থানার এস আই টিপু লাল দাস তিনি ফোরকান কর্তৃক দায়েরকৃত মামলার চুরান্ত প্রতিবেদন দিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু হানিফ এর স্ত্রী কর্তৃক দায়ের কৃত মামলার এখনো প্রতিবেদন দেন নাই। তার সংঙ্গে যোগাযোগ করা হলে। এস. আই টিপু লাল দাসা বলেন মামলাটি তদন্তাধীন আছে এখন কিছু বলা যাচ্ছে না। সচেতন মহলের দাবী উঠেছে বিষয়টি প্রশাসনের উর্দ্ধতন মহল কর্তৃক যথাযথ দতন্ত সাপেক্ষে দোষী ব্যাক্তিদের শাস্তির ব্যবস্থা ও নির্দোষ ব্যাক্তিরা যেন হয়রানীর স্বিকার না হয়।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *