আইনশৃংখলা বিঘ্নকারীদের কোন রকম ছাড় দেয়া হবেনা : বিএমপি কমিশনার

 

:: ৭১বিডি২৪ডটকম :: ব্যুরো প্রধান ::


বরিশাল


:: বরিশাল :: বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের (বিএমপি) কমিশনার এসএম রুহুল আমীন বলেছেন, আইনশৃংখলা বিঘ্নকারী অথবা কেউ যদি কোন দুষ্কর্ম ঘটনোর চেষ্টা করে তাকে কোন রকম ছাড় দেয়া হবেনা। এজন্য ১লা বৈশাখ নববর্ষ বরণকে ঘিরে বরিশালে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে।

মঙ্গলবার (০১ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১ টায় বরিশাল নগরের আমতলামোড়স্থ বরিশাল মেট্রোপলটিন পুলিশের কার্যালয়ের সভাকক্ষে আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

এসময় পুলিশ কমিশনার আরো বলেন, ১লা বৈশাখকে ঘিরে কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা, সন্ত্রাস কিংবা জঙ্গীবাদের কোন সুযোগ রাখবো না। সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিতের জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশের  একাধিক টিম মাঠ পর্যায়ে কাজ করবে। পাশিাপাশি অনুষ্ঠান আয়োজকদেরও প্রশাসনকে সহায়াতায় এগিয়ে আসতে হবে।

তিনি বলেন, মঙ্গল শোভাযাত্রা ও অন্যান্য অনুষ্ঠানস্থলে এক মোটরসাইকেলে একজনের অধিক আরোহী বহন করা যাবে না। মঙ্গলশোভাযাত্রায় মুখোশ পরে কেউ আসতে পারবে না। অনুষ্ঠানস্থলে কেউ কোন প্রকারের ব্যাগ, দিয়াশলাই বা গ্যাসলাইটসহ দাহ্য পদার্থ নিয়ে আসতে পারেবে না। পটকা আতশবাজি ফোটানো যাবে না।

সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, ডিজিএফআইর পরিচালক কর্নেল শরীফুল আলম, বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ বাকির হোসেন, বরিশাল মেট্রোপলিট পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মাহাফুজুর রহমানসহ পুলিশ ও র‌্যাবের উর্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ, বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও সাংবাদিকবৃন্দ। সভায় আসন্ন নববর্ষ বরন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানমালা নির্বিঘ্নে পালন ও ওইদিন নগরজুড়ে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়ার কথা জানিয়েছে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ।

পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বরিশাল নগরের পহেলা বৈশাখ বিভিন্ন সংগঠন মঙ্গলশোভাযাত্রা করবে। এরমধ্যে চারুকলা ও উদীচী কাছাকাছি সময়ে পৃথক মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করবে। মঙ্গলশোভাযাত্রার রুটকে ঘিরে যানবাহন চলাচলে নিয়ন্ত্রন ও বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে।

এছাড়া বেশকিছু সংগঠন ১৩ তারিখ থেকে ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত মেলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ নানান আয়োজন করেছে, যে অনুষ্ঠানের নিরাপত্তায়ও নিয়োজিতো থাকবে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। তবে আয়োজকদের অনুষ্ঠানস্থল ঘিরে সিসি ক্যামেরা স্থাপন ও নিজস্ব ভলান্টিয়ারের ব্যবস্থা রাখতে হবে যাদের কাছে আর্মড ব্যান্ড থাকতে হবে। পহেলা বৈশাখসহ টানা তিন দিন বরিশাল নগরে ৫০১ জন পুলিশের পোশাকধারী সিভিলে ৭ ধরেনের টিম দায়িত্ব পালন করবেন। ওই সময়কালে পুলিশ ছাড়াও এনএসআই, ডিজিএফআই, র‌্যাব ও সিটিএসবি এবং আয়োজকদের নিজস্ব নিরাপত্তা বাহিনী আইনশৃঙ্খলার দায়িত্বে থাকবে। সেই সাথে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং সিভিল সার্জনের উদ্যোগে বিশেষ মেডিকেল টিম ও ফায়ার সার্ভিস বিভাগের একাধিক টিম প্রস্তুত থাকবে।

Recommended For You

About the Author: HumayrA

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *